উনি ভালো ম্যাজিশিয়ান, কাকে উদ্দেশ্য করে একথা বললেন সুজন চক্রবর্তী

Photo-File

বামেরা সরকার গড়লে আগামী দিনে সরকারের আসার পনেরো দিনের মধ্যে তোলাবাজি উচ্ছেদ করব।

  • Share this:

#মেমারি: অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভালো ম্যাজিশিয়ান বললেন সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী। শনিবার সন্ধ্যায় পূর্ব বর্ধমানের মেমারিতে সুজন চক্রবর্তী অভিষেকের উদ্দেশ্যে বলেন, উনি একজন ভাল ম্যাজিশিয়ান হয়েছেন। উনি হাওয়া করতে পারেন। বাংলার বহু মানুষকে হাওয়া করে মাটির তলায় পুঁতে দিয়েছেন।অভিষেক বাবুকে বলছি। কিন্তু বাংলার মানুষের শক্তিকে দুর্বল করতে পারবে না। পারলে সরকারি নিরাপত্তা ছাড়া রাস্তায় ঘুরে দেখান। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় শনিবার বলেছিলেন, এবারের নির্বাচনে জিততে পারবেন না সুজন চক্রবর্তী। তিনি হাওয়া হয়ে যাবেন।সে ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হলে এই মন্তব্য করেন সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী।

মা ক্যান্টিন প্রসঙ্গে সুজনবাবু বলেন, মানুষের প্রয়োজনে শ্রমজীবী ক্যান্টিন ও কমিউনিটি কিচেন বাংলার মানুষ তথা ভারতের মানুষ সালাম করেছে। তাই দেখে মুখ্যমন্ত্রীর দুঃখ হয়ে তিনি প্রকল্পের ঘোষণা করেছেন। কয়েকটি জায়গায় খাজনার থেকে বাজনা বেশি হয়ে যাওয়ায় দু-এক দিন চলে। ভোটের সময় বুঝতে পারছেন সরকার ডুববে। সরকারের পয়সায় ভোটের দু-মাস আগে করলেন কেন? প্রশ্ন তোলেন সুজন চক্রবর্তী।

তিনি বলেন,দশ বছর ধরে করেননি কেন? লকডাউনে আমি চিঠি দিয়ে বলেছিলাম প্রত্যেকটি ওয়ার্ড ও গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় করার জন্য। কিন্তু করেননি। সব গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় হচ্ছে, নাকি টাকা লুট করার একটি বন্দোবস্ত? এবারের ভোটে বামেরা সরকার গঠনে নির্নায়ক হয়ে উঠবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। সুজন চক্রবর্তী বলেন, তৃণমূল বা বিজেপি কারও আমাদের বাদ দিয়ে সরকার গড়ার ক্ষমতা নেই। তাই এবারের ভোটে তৃণমূল কিংবা বিজেপি সরকার করতে পারবে না। বামেরা সরকার গড়বে। বামেরা সরকার গড়লে আগামী দিনে সরকারের আসার পনেরো দিনের মধ্যে তোলাবাজি উচ্ছেদ করব।

তিনি বলেন, সরকারে আসার এক মাসের মধ্যে যাদের যাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে সেই সমস্ত মামলা প্রত্যাহার করে নেওয়া হবে।পশ্চিমবঙ্গের যে সমস্ত দখলদারি পঞ্চায়েত এবং পৌরসভা আছে তাদেরকে ঘাড় ধরে বের করে দিয়ে নির্বাচনের মধ্য দিয়ে মানুষের পঞ্চায়েত এবং পৌরসভা করে তুলবো। ২০২১ এ ক্ষমতায় আসার পর ২০০ ইউনিটের কম যারা বিদ্যুৎ ব্যবহার করেন তাদের পঞ্চাশ শতাংশ ছাড়ের ব্যবস্থা করব।২০২১-এ ক্ষমতায় আসার পর পশ্চিমবঙ্গের যে সমস্ত চুক্তিভিত্তিক কর্মীরা আছেন তাদের ন্যূনতম বেতন কাঠামো চালু করা হবে। এর থেকে বাদ পড়বেন না সিভিক ভলেন্টিয়ারাও।

তিনি বলেন, ক্ষমতায় আসার এক বছরের মধ্যেই, টেট, এসএসসি, পিএসসি সহ পুলিশের কনস্টেবলের সমস্ত পরীক্ষা হবে এবং স্বচ্ছভাবে নিয়োগ করা হবে। প্রতি বছর শূন্য পদ পূরণ করা হবে।

Saradindu Ghosh

Published by:Debalina Datta
First published: