সন্তান ব্ল্যাকবোর্ড ঝাপসা দেখছে? মায়োপিয়া নয় তো!

সন্তান ব্ল্যাকবোর্ড ঝাপসা দেখছে? মায়োপিয়া নয় তো!

টিভি, কম্পিউটার, কিংম্বা মোবাইল সবধরনের মনিটরই চোখের সমস্যা বাড়ায়।নিয়ম মেনে সাবধানে ব্যবহার না করলে বাড়বে চোখের সমস্যা।বাচ্চা ব্ল?

  • Share this:

#বারাসত: মোবাইল ফোন বা কম্পিউটারে বেশিক্ষণ চোখ রাখলে শিশুর চোখে মায়োপিয়া রোগ হতে পারে। শনিবার বারাসতে একটি সেমিনারে যোগ দেওয়ার আগে এমনই কথা জানালেন দক্ষিণ ভারতের চেন্নাই শহরের বেসরকারি চক্ষু হাসপাতালের  বিখ্যাত চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞ কৃষ্ণকুমার।

এদিন তিনি বারাসতের একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে লাইফ স্টাইল ডিজিস নিয়ে সেমিনার এ যোগ দিতে আসেন। তার আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেন, 'আজকাল শিশুদের মধ্যে মোবাইল বা কমপিউটারে গেম খেলার প্রবণতা বাড়ছে। দীর্ঘক্ষণ মোবাইল বা কম্পিউটারে স্ক্রিনে চোখ রাখার ফলে মস্তিষ্কের মধ্যে নানা ক্রিয়া-বিক্রিয়া হচ্ছে। তার ফলে শিশুর দৃষ্টিশক্তি বিঘ্নিত হচ্ছে। ওই শিশুরা দূরের বস্তু ভালো করে দেখতে পারছে না। বিশেষ করে ক্লাসে ব্ল্যাকবোর্ডের লেখাগুলো ঝাপসা দেখছে। চিকিৎসা পরিভাষায় শিশুদের এই অসুখকে বলা হয় মায়োপিয়া।'

আজকের সময় কলেজ থেকে স্কুল কিংম্বা বিশ্ব বিদ্যালয় সর্বত্র কম্পিউটার, ল্যাপটপ কিংম্বা মোবাইল ফোনের ডিসপ্লের উপর নির্ভর করতে হয়ই।সময়ের বাধ্য বাধকতার কথা মেনে নিয়ে  চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞ কৃষ্ণকুমার পরামর্শ শিশু ও কিশোরদের দিনে দু ঘন্টার বেশী সময় ইলেকট্রনিক স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে না থাকাই ভাল।এখনকার বাচ্চা রা মাঠে না গিয়ে কম্পিউটার বা মোবাইলে গেম খেলছে।সে আবস্থা থেকে বেড় হতে হবে বল মত তার।চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞ কৃষ্ণকুমার এদিন বলেন শরীরে রোদ লাগাতে হবে।টানা মনিটর এর দিকে তাকিয়ে থাকলে, এক সময় দূরের জিনিষ ঝাপসা দেখা শুরু হবে।

অভিভাবকদের উদ্দেশে চিকিৎসক কৃষ্ণকুমারের পরামর্শ, 'মোবাইল বা কমপিউটারে গেম খেলা থেকে শিশুকে বিরত রাখতে হবে। যতটা সম্ভব দিনেরবেলা প্রাকৃতিক আলোয় তাদের খেলাধুলো করানোর অভ্যাস করাতে হবে'। শিশু যদি ব্ল্যাকবোর্ড ঝাপসা দেখতে শুরু করে, দেরি না-করে দ্রুত তাকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়া উচিত। না হলে মায়োপিয়া অসুখের জন্য শিশুর দৃষ্টিতে অন্য সমস্যাও দেখা দিতে পারে।'আর মনটির সব সময় ৪০ ডিগ্রি কোনের নিজে রাখতে হবে।কারন নিচের দিকে দৃষ্টি রাখলে চোখের জল বজায় থাকবে।ফলে চোখ ভাল থাকবে।

RAJARSHI ROY

First published: February 29, 2020, 8:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर