নাতনির দেহ ভোগ করতে উদ্যত অপরাধী, জীবন দিয়ে সম্মান বাঁচালেন দিদা

নাতনির দেহ ভোগ করতে উদ্যত অপরাধী, জীবন দিয়ে সম্মান বাঁচালেন দিদা
Representative Image

আশালতা দেবীর সঙ্গে দশম শ্রেণীর পড়ুয়া ছাত্রী নাতনি একই বাড়িতে থাকত। বুধবার গভীর রাতে এলাকার যুবক বিকাশ চৌধুরী বাড়ির জানালা ভেঙে ঘরের ভেতর ঢোকার চেষ্টা করে।

  • Share this:

#বহরমপুর: ধর্ষণের হাত থেকে নাতনিকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল দিদার। মৃতের নাম  আশালতা দেবী(৬২)। বুধবার গভীর রাতে বহরমপুর থানা বসন্ত তলা এলাকার ঘটনা। এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এই ঘটনা সামনে আসায়৷

আশালতা দেবীর সঙ্গে দশম শ্রেণীর পড়ুয়া ছাত্রী নাতনি একই বাড়িতে থাকত। বুধবার গভীর রাতে এলাকার যুবক বিকাশ চৌধুরী বাড়ির জানালা ভেঙে ঘরের ভেতর ঢোকার চেষ্টা করে। আশালতা দেবী বাধা দিলে তাঁকে টানতে টানতে বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে বেগুনের জমির মধ্যে শ্বাসরোধ করে খুন করে ওই যুবক। এরপর ওই যুবক ফিরে এসে ওই কিশোরীকে দরজা খুলতে বাধ্য করে। ওই কিশোরীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে আসলে ওই যুবককে ধরে ফেলে।

ওই ছাত্রীর অভিযোগ, বিকাশ চৌধুরী নামে ওই যুবক স্কুলে যাওয়ার সময় প্রায়ই ওই কিশোরীকে উত্ত্যক্ত করতো। বুধবার রাতে এসে জানালা ভেঙে ঘরে ঢুকতে যায় বিকাশ। তারপরেই খুন করে ওই ছাত্রীর দিদাকে৷ যদিও শেষরক্ষা হয়নি৷

বুধবারই বহরমপুর থানার পুলিশ এসে বিকাশকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। সকালে বেগুনের জমি থেকে ওই বৃদ্ধার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। অভিযোগ বিকাশ চৌধুরী এর আগেও গ্রামের এক শিশুকন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছিল। সেই ঘটনায় বেশ কিছুদিন ধরে জেলবন্দি ছিল বিকাশ। বহরমপুর আদালতে এখনও সেই অপরাধের বিচার চলছে।

আশালতাদেবীর প্রতিবেশী অলক বিশ্বাস এদিন সংবাদমাধ্যমকে বলে, ‘‘নাতনিকে নিয়ে খুব কষ্ট করে সংসার চালাতেন ওই বৃদ্ধা। ওই কিশোরীকে বাঁচাতে গিয়েই প্রাণ হারাতে হলো ওই বৃদ্ধাকে।’’

Pranab Kumar Banerjee

First published: March 5, 2020, 8:54 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर