corona virus btn
corona virus btn
Loading

পুলিশ ছেলে টাকা চাইলে ফোনে হুমকি দেয়, বৃদ্ধ দম্পতিকে দেখভালের দায়িত্বে এগিয়ে এল ‘অন্য’ ছেলে-মেয়ে

পুলিশ ছেলে টাকা চাইলে ফোনে হুমকি দেয়, বৃদ্ধ দম্পতিকে দেখভালের দায়িত্বে এগিয়ে এল ‘অন্য’ ছেলে-মেয়ে

NEWS18 IMPACT- পুলিশ ছেলের বিরুদ্ধে আদালতে যাওয়া মা বাবার সংংসার চালাতে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে পাশে দাঁড়ালো দুবরাজপুরের প্রচেষ্টা

  • Share this:

#বীরভূম: পুলিশ ছেলে নয়, বৃদ্ধ বাবা-মায়ের পাশে দাঁড়ালো এলাকার যুবক-যুবতীর। NEWS18 বাংলার খবরের জের বৃদ্ধ ওই দম্পতির পাশে এলাকার  যুবক যুবতীরা। মঙ্গলবার সকাল-সকাল পৌছে দিলেন খাদ্য সামগ্রী। বীরভূমের দুবরাজপুরের উত্তম দত্ত দুবরাজপুরের বেসরকারি বাসের কাছ থেকে দুই টাকা পাঁচ টাকা করে নিয়ে সংসার চালাতেন কিন্তু লকডাউনে বাস বন্ধ থাকায় অভাব দেখা দেয় সংসারে।

কষ্ট করে ছেলেকে মানুষ করে পুলিশের কনস্টেবল গড়ে তুলেছেন৷ বর্তমানে তার ছেলে কলকাতার বিধাননগরে চাকরি করে৷  লকডাউন এ আর্থিক সংকটের জেরে বৃদ্ধ মা-বাবা পুলিশ ছেলের কাছে সংসার চালাবার জন্য টাকা চাই৷ পুলিশ ছেলে টাকা দেওয়া তো দূরের কথা উল্টে ফোনের মাধ্যমে দিচ্ছে শুধুই হুমকি৷  এরপর উত্তম দত্ত ও তার স্ত্রী দুবরাজপুর আদালতে দ্বারস্থ হন খোরপোষের জন্য৷

এই খবর NEWS18 বাংলায় সম্প্রচার হতে এলাকার বেশ কিছু যুবক যুবতী তাদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়৷ "প্রচেষ্টা"র নাম দিয়ে যুবক যুবতীরা বৃদ্ধ দম্পতিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন৷ আজ সকালে তাদের বাড়িতে গিয়ে নিত্য সামগ্রী দিয়ে আসে প্রচেষ্টার সদস্যরা৷ সেখানে চাল, ডাল, আলু, সবজি, বিস্কুট, ডিম, শাড়ি, লুঙ্গি, সহ আরো অনেক কিছু দিয়ে আসে এবং যতদিন না কোন সুবিচার পারছেন ততদিন তাদের পাশে থাকবেন বলে জানান প্রচেষ্টা সদস্যরা৷

এই দুঃসময়ে আজ তাঁরা দুবরাজপুরের উত্তম দত্তের পাশে দাঁড়ালো। উল্লেখ্য, সম্প্রতি উত্তমবাবু ও তাঁর স্ত্রী দুবরাজপুর আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। কারণ তাঁর ছেলে পুলিশ কনস্টেবল। কিন্তু চাকরি পাওয়ার পর থেকে বাবা-মাকে দেখে না। ঐ বৃদ্ধ দম্পতির খুব কষ্ট করে দিন কাটে। কখনও বা একবেলা খাবার পর্যন্ত জুটে না। তাই তাঁরা ছেলের বিরূদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তাঁদের খবর সম্প্রচার দেখতে পাই প্রচেষ্টা সংস্থার সদস্য অভীক মিশ্র। তিনি ঐ বৃদ্ধ দম্পতির খোঁজ নেন এবং আজ তাঁদের বাড়িতে প্রচেষ্টা সংস্থার সদস্যরা গিয়ে বাড়ীর প্রয়োজনীয় জিনিস পত্র দিয়ে আসেন। আজ তাঁরা ঐ দম্পতিকে পরনের কাপড়, চাল, ডাল, মুসুরি, আলু, পেঁয়াজ, চিনি, দুধ, চা, মুড়ি, সাবান, তেল, বিস্কুট, ডিম, বিভিন্ন রকম সব্জি সহ আরো নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিষ প্রদান করেন। প্রচেষ্টা সংস্থার সদস্য অভীক মিশ্র জানান, এই দুঃসময়ে খুব কষ্টের মধ্য দিয়ে দিনযাপন করছিলেন এই বৃদ্ধ দম্পতি। তাই প্রচেষ্টা পরিবার তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছে। আগামীতে আবারও আমরা তাঁদের এভাবেই পাশে দাঁড়াব।  অন্যদিকে উত্তম দত্ত জানান, পাড়ার এই ভাইপো, ভাইজিরা আমার এই দুঃসময়ে পাশে দাঁড়িয়েছে আমার খুব ভালো লাগছে।  প্রচেষ্টা সংস্থার এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

Supratim Das

Published by: Debalina Datta
First published: June 16, 2020, 10:57 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर