Home /News /south-bengal /
Crime: কাজ সেরে ফিরছিলেন বধূ! অন্ধকারে হঠাৎ পথ আটকাল বাইক আরোহী, তার পর..

Crime: কাজ সেরে ফিরছিলেন বধূ! অন্ধকারে হঠাৎ পথ আটকাল বাইক আরোহী, তার পর..

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Crime: বুধবার রাতেও ভ্যান থেকে নেমে ওখানে অপেক্ষারত তাঁর বাবার সঙ্গে বাড়িতে ফিরছিল। তখন আচমকাই বাইকে করে এসে পথ আটকায় সমীরকুমার দাস নামে বনগাঁর বাসিন্দা এক ব্যক্তি।

  • Share this:

    #গোবরডাঙা: গোবরডাঙা স্টেশন থেকে মেদিয়ার সুভাষনগরে বাড়ি ফেরার পথে হামলার শিকার (Crime) হলেন এক বধূ ও তাঁর বাবা। বুধবার রাত সাড়ে এগারটা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে মেদিয়া এলাকায়। ধারালো দা দিয়ে বুকে ও গলায় আঘাত করা হয়েছে দু'জনরেই।

    জানা গিয়েছে স্বরূপনগর থানার অন্তর্গত মেদিয়া সুভাষ নগরের বাসিন্দা আক্রান্ত  (Crime) বছর সাতাশের তরুণী কলকাতা থেকে বিউটি পার্লারের কাজ করে প্রতিদিনের মতো ট্রেনে করে রাত সওয়া এগারোটা নাগাদ গোবরডাঙা স্টেশনে পৌঁছন। সেখান থেকে ভ্যানে করে মেদিয়া মোড়ে এসে নামেন । এর পর তার বাবার সঙ্গে কিছুটা হেঁটে বাড়িতে যান।

    আরও পড়ুন : ফের ক্লাসরুমে পড়ুয়াদের হাসিমুখ! বৃহস্পতিবার থেকে খুলছে রাজ্যের স্কুল-কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়...

    বুধবার রাতেও ভ্যান থেকে নেমে ওখানে অপেক্ষারত তাঁর বাবার সঙ্গে বাড়িতে ফিরছিল। তখন আচমকাই বাইকে করে এসে পথ আটকায় সমীরকুমার দাস নামে বনগাঁর বাসিন্দা এক ব্যক্তি। সমীরের সঙ্গে অন্য এক ব্যক্তি ছিল সে বাইকে বসেছিল। সমীর তাঁর হাতে থাকা দা দিয়ে আচমকাই লক্ষীর উপর হামলা করে,তার গলায় দা দিয়ে কোপ মারে বলে অভিযোগ। বাধা দেয় লক্ষ্মীর বাবা দীননাথ পণ্ডিতের বুকে ও হাতে আঘাত করা হয় । এর পর আহতদের চেঁচামেচিতে সমীর ও সঙ্গে থাকা যুবক পালিয়ে যায়।

    আরও পড়ুন : পাঠশালা আবার খুলবে, জোরকদমে স্কুলড্রেস কেনার হিড়িক

    আক্রান্ত দীননাথ ও তাঁর পরিবার জানিয়েছে, সমীর বিবাহিত তাঁর দুই সন্তান রয়েছে। লক্ষ্মীরও প্রথম বিয়ে বছর তিনেকের পর ছিন্ন হয়ে যায়। তাই এক মাত্র সন্তানকে নিয়ে বাপের বাড়িতে থাকছিল । বছর সাতেক আগে সমীরের সঙ্গে লক্ষ্মীর আলাপ হয়। এর পর দুজনে বিয়ে করে মেদিয়ার সুভাষনগরে কিছু দিন ছিলেন। পরে লক্ষ্মী ও সমীর কাজের সুবিধার্থে দুর্গানগর ভাড়া বাড়িতে থাকত। সম্প্রতি দুজনার মনোমালিন্য হওয়ায় লক্ষ্মী বাপের বাড়িতে চলে আসে । সেই আক্রশ থেকেই হামলা বলে মনে করছে পরিবার। আহত লক্ষ্মী ও তাঁর বাবাকে পরিবারের লোকেরা আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে।

    Published by:Uddalak B
    First published:

    Tags: Crime

    পরবর্তী খবর