Home /News /south-bengal /
War In Ukraine: পোল্যান্ড সীমান্তে ভারতীয় পড়ুয়াদের কুকুর লেলিয়ে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ, চিন্তায় বাংলার পরিবার

War In Ukraine: পোল্যান্ড সীমান্তে ভারতীয় পড়ুয়াদের কুকুর লেলিয়ে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ, চিন্তায় বাংলার পরিবার

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব চিত্র

War In Ukraine: যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনে আটকে রয়েছেন খড়িবাড়ির ডাক্তারির পড়ুয়া অরবিন্দ ছেত্রী।

  • Share this:

    #খড়িবাড়ি: ইউক্রেনে ডাক্তারি পাঠরত ছেলে রয়েছে চরম বিপদের মুখে। শেষ দুদিনে কথা টুকু হয়নি ছেলের সঙ্গে। তাই খড়িবাড়ির ছেত্রী পরিবার এখন চাইছে ছেলেকে আগে খুঁজে পেতে। পেলে সরাসরি বাড়িতে ফেরাতে চায় পরিবার। যতক্ষণ না ছেলের সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে, ততক্ষণ শান্তিতে বসতে পারছে না গোটা পরিবার।

    ছেত্রী পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ছেলে জীবিত না মৃত, সেটাই কেউ জানে না। দেড় দিন কেটে গিয়েছে, ছেল অরবিন্দ ছেত্রীর সঙ্গে কথা হয়নি। ভারত সরকারের কাছে তাই পড়ুয়ার পরিবারের দাবি, যে ভাবে হোক ছেলেকে ফেরাতে হবে। যাতে কফিন বন্দী হয়ে ছেলেকে ফিরতে না হয়, সে যেন প্রাণ হাতে করে ফিরতে পারে।

    আরও পড়ুন: ফের জরুরি বৈঠকে মোদি, ইউক্রেনে আটক ভারতীয়দের উদ্ধারে যাচ্ছেন চার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

    যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনে আটকে রয়েছেন খড়িবাড়ির ডাক্তারির পড়ুয়া অরবিন্দ ছেত্রী। লভিভ ন‍্যাশনাল মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটির তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী অরবিন্দ অগষ্ট মাসে শেষবার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেন। যুদ্ধের মধ্যে আটকে পড়েছেন তিনি। ভারতীয় দূতাবাসের ঘোষণা মতো তিনি হস্টেল থেকে পোল‍্যান্ড সীমান্তে গিয়েও ইউক্রেন ছাড়তে পারেননি বলে জানিয়েছে পরিবার। পোল্যান্ড সীমান্তে ঢুকতে না দেওয়া হয়নি তাঁদের। এমন কী কুকুর দিয়ে তাড়া করানোর মতো ঘটনাও ঘটেছে।ফলে ফের হোস্টেলে ফিরতে হয়েছে অরবিন্দ-সহ আরও ৭ শিক্ষার্থীকে।

    আরও পড়ুন: বোতল বোতল মদ ফেলা হচ্ছে নর্দমায়! ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধে বিপাকে ভদকা!

    দ্রুত সুস্থ মতো দেশে ফিরুন অরবিন্দ-সহ বাকি পড়ুয়ারা, চান অরবিন্দের মা জ‍্যোতি ছেত্রী। হোয়াটসঅ্যপ কল ভরসা হলেও রাতের পর আর ফোন না হওয়ায় নতুন করে চিন্তা শুরু হয়েছে পরিবারে।। সরকারের কাছে আবেদন ছেলেদের এই বিপদজনক এলাকা থেকে সরিয়ে নেওয়া হোক। সরকার দুটি প্লেন পাঠিয়ে আনার ব‍্যবস্থা করছে, ১৮ হাজার শিক্ষার্থী না হলে কেমন করে ফিরবেন।

    Published by:Uddalak B
    First published:

    Tags: Russia, Ukraine crisis

    পরবর্তী খবর