সোনাঝুরির জঙ্গল থেকে ৭০টিরও বেশি গাছ বেআইনিভাবে কেটে ফেলার অভিযোগে বীরভূমে বহিষ্কৃত তৃণমূল নেতা

সোনাঝুরির জঙ্গল থেকে ৭০টিরও বেশি গাছ বেআইনিভাবে কেটে ফেলার অভিযোগে বীরভূমে বহিষ্কৃত তৃণমূল নেতা

শুধু গাছ কাটাই নয় জুলুমবাজি, আদিবাসীদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে স্থানীয় এক তৃণমূল নেতাকে তাঁর পদ থেকে বহিষ্কার

  • Share this:

#বোলপুর: বোলপুরের সোনাঝুরি জঙ্গলে নিয়ম বহির্ভুত ভাবে গাছ কেটে নেওয়া ও সোনাঝুড়ির জঙ্গলে ব্যবসায়ীদের উপর জুলুমবাজি,  আদিবাসীদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে স্থানীয় এক তৃণমূল নেতাকে তাঁর পদ থেকে বহিষ্কার করেন তৃণমূলের বীরভূমের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল।

দীর্ঘদিন ধরেই সোনাঝুরি জঙ্গল থেকে বেআইনি ভাবে গাছ কেটে নেওয়ার জেরে সৌন্দর্য্য হারাচ্ছিল খোয়াই লাগোয়া সোনাঝুড়ির জঙ্গল। অভি্যোগে,  বোলপুরের রূপপুর অঞ্চল কমিটির পদ থেকে কাজি নুরুল হুদাকে সরিয়ে দিলেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। গাছ কেটে নেওয়া ছাড়াও সোনাঝুড়ির হাটে ব্যবসায়ীদের উপর জুলুমবাজি ছাড়াও আদিবাসীদের প্রাপ্য আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে ওই তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে।  সাংবাদিক বৈঠক করে ওই নেতার রূপপুর পঞ্চায়েত এলাকায় ঢোকার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন অনুব্রত । অনুব্রত মন্ডল জানান, সোনাঝুরি জঙ্গলে ক্যানেল সংস্কারের নামে ৭০ টির বেশি গাছ বেআইনি ভাবে কেটে ফেলা হয়েছিল। সোনাঝুরিতে গাছ কাটা নিয়ে নিন্দায় সরব হয়েছিলেন পরিবেশপ্রেমী থেকে স্থানীয় বাসিন্দারা। তার বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভি্যোগ জমা পড়েছিল বীরভূম জেলা তৃণমুলের দফতরে। তৃণমুলের দফতর থেকে প্রতিনিধি দল ঘটনাস্থলে ঘটনার তদন্ত করে রিপোর্ট জমা দেয় দলীয় দপ্তরে,  তার পরেই দল থেকে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ওই তৃণমূল নেতাকে।

Supratim Das

First published: March 13, 2020, 9:57 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर