কাজে এল না কচুরিপানা, গোটা এক রাত জলাশয়ে লুকিয়ে ধৃত বিএসএফ-এর হাতে

কাজে এল না কচুরিপানা, গোটা এক রাত জলাশয়ে লুকিয়ে ধৃত বিএসএফ-এর হাতে
representative image

প্রায়শই এভাবেই বিএসএফ এর চোখে ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিল বাংলাদেশী পাচারকারীরা।

  • Share this:

#উত্তর ২৪ পরগণা: এ যেন বলিউডি সিনেমা, কচুরিপানা ভর্তি জলাশয়ে লুকিয়ে থেকেও হল না শেষরক্ষা ৷ রাতভর ঘিরে রাখার পর কচুড়িপানা ভর্তি জলাশয়ে লুকিয়ে থাকা ৭ বাংলাদেশী পাচারকারীকে উদ্ধার করে গ্রেফতার করল বিএসএফ। ঘটনায় খুশি গ্রামবাসী । প্রায়শই এভাবেই বিএসএফ এর চোখে ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিল বাংলাদেশী পাচারকারীরা।

ঘটনাটি ঘটে উত্তর ২৪ পরগণার স্বরূপনগরের কৈজুড়ি সিমান্তে । এই অঞ্চলের বেশ কিছু এরিয়ায় তারকাটা নেই, আর তার সুযোগ নিয়ে প্রতিদিন বাংলাদেশী পাচারকারীরা এপারে চলে আসছে। একটা গরু পার করতে পারলে রাখাল পায় নগদ ৪০০০ টাকা। গরুর দাম, চল্লিশ হাজার থেকে এক লক্ষ কুড়ি হাজার পর্যন্ত। আর সেই কারণে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রত্যেকদিন ওপারের পাচারকারীরা চলে আসছে এপারে। গরু নিয়ে চাষের জমির উপর দিয়ে সিমান্ত পার হয় BSF জওয়ানদের চোখ ফাঁকি দিয়ে , ফলে জমির ফসল নষ্ট হয় ৷ গ্রামবাসিরা প্রতিবাদ করলে ধারাল অস্ত্রের ভয় দেখায় তারা ৷

গতকালও রুটিন মাফিক ১৫৩ নং ব্যাটেলিয়নের জওয়ানরা কৈজুড়ি-২ ক্যাম্পের সীমান্তে রাত পাহারা দিচ্ছিল, সেই সময় এক দল পাচারকারীকে গরু নিয়ে যেতে দেখে বাঁধা দেয় তারা। এরপর তাদের উপর হামলা করে পাচারকারীরা দা, লাঠি, পাথর দিয়ে। বিএসএফ শূন্যে গুলি চালালে গরু ফেলে পালায় তারা। কিন্তু তাদের করিডোরে প্রচুর পরিমাণে বিএসএফ মোতায়েন করে আগে থেকেই ঘিরে রাখা হয়েছিল। প্রতিদিনের মতো যেন পালিয়ে যেতে না পারে। পাচারকারীরা পালাতে বাঁধা পেয়ে কচুড়িপানায় ভর্তি বিরাট এই জলাশয়ে ঝাঁপ দিয়ে পালানোর চেষ্টা করে।

বিএসএফও নাছোড়বান্দা রাতভর ঘিরে রাখল জলাশয়। ভোর থেকে অভিযান চালিয়ে জলে নেমে একটা একটা করে সাত বাংলাদেশী পাচারকারীকে জলের মধ্যে পানার তলা থেকে খুঁজে বার করেছে তারা, এবং ৬ টি গরু উদ্ধার করেছে ৷

বিএসএফ এর এই সাফল্যে গ্রামবাসীরাও খুশি কারণ গরু নিয়ে যাওয়ার সময় ফসলের ক্ষতি করত। বাড়ির উপর দিয়ে যেতে বাধা দিলে ধারালো অস্ত্র দেখিয়ে খুনের হুমকি দিত। ওই সাত বাংলাদেশিকে গতকাল সন্ধায় স্বরুপনগর থানার পুলিশের হাতে তুলে দেয় BSF ৷ আজ তাদের বসিরহাট আদালতে তোলা হবে ৷

First published: 01:07:03 PM Aug 19, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर