ভদ্রেশ্বর চেয়ারম্যান খুনে বারাণসী থেকে মূল অভিযুক্ত সহ ধৃত ৭

ভদ্রেশ্বর চেয়ারম্যান খুনে বারাণসী থেকে মূল অভিযুক্ত সহ ধৃত ৭

ভদ্রেশ্বর চেয়ারম্যান খুনে বারাণসী থেকে মূল অভিযুক্ত সহ ধৃত ৭

  • Share this:

#হুগলি: বিহার হয়ে উত্তরপ্রদেশে গা ঢাকা দিয়েও শেষরক্ষা হল না। ভদ্রেশ্বরের চেয়ারম্যান খুনে পুলিশের জালে মূল অভিযুক্ত রাজু, রতন-সহ সাতজন। বারাণসীর একটি হোটেল থেকে গতকাল রাতে তাদের গ্রেফতার করেন চন্দননগর কমিশনারেটের গোয়েন্দারা। ট্রানজিট রিমান্ডের জন্য আজ ধৃতদের বারাণসীর আদালতে তোলা হতে পারে। সেক্ষেত্রে কাল এরাজ্যে তাদের আনা হতে পারে। খুনের ঘটনায় আগেই একজন গ্রেফতার হয়েছে। এদিকে, গতকালই তদন্তভার হাতে নিয়েছে সিআইডি।

হুগলির ভদ্রেশ্বর পুরসভার চেয়ারম্যান মনোজ উপাধ্যায় খুনের ঘটনায় পুলিশের বড়সড় সাফল্য। সাতদিনের মাথায় জালে মূল অভিযুক্ত-সহ সাতজন। সোমবার রাতে বারাণসীর বিনিয়া বাগ এলাকা থেকে তাদের পাকড়াও করে চন্দননগর কমিশনারেটের পুলিশ। খুনের ঘটনার পরই বিহার হয়ে উত্তরপ্রদেশে পালায় তারা। এরপর মোবাইলের টাওয়ার লোকেশন ট্র্যাক করে ও বিভিন্ন সূত্র মারফত পুলিশ খবর পায় যে, বারাণসীর একটি হোটেলে রয়েছে ওই সাতজন। এরপরই হোটেল ঘিরে ফেলে তাদের ধরা হয়। গ্রেফতার হয়- রাজু চৌধুরী, রতন চৌধুরী, কৃষ্ণ চৌধুরী, আকাশ চৌধুরী, রাজেশ চৌধুরী, সন্তোষ প্রসাদ ও দেবু পাকড়ে ৷

গত মঙ্গলবার রাতে বাড়ি ফেরার পথে খুন হন মনোজ উপাধ্যায়। জিটি রোডের পাশে অঙ্কুর হাসপাতালের সামনে তাঁর বাইক আটকায় ২০ থেকে ২২ জন যুবক। সেইসময় আচমকাই মনোজবাবুকে লক্ষ করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়া হয়। তাঁর বুকে ও পেটে গুলি লাগে। চন্দননগর হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃত বলে জানান চিকিৎসকরা।

তদন্তে নেমে পরের দিনই মনোজ রায় নামে একজনকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। এদিকে, কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগে ইতিমধ্যেই চন্দননগরের পুলিশ কমিশনারকে বদলি করা হয়। পীযুষ পাণ্ডের জায়গায় দায়িত্বে এসেছেন অজয় কুমার। নতুন সিপি দায়িত্ব নিয়েই চাঁপদানি ফাঁড়ির ইনচার্জকে সরিয়ে দেন। এরপর রবিবার ভদ্রেশ্বর থানার ওসি অনুদ্যুতি মজুমদারকে ক্লোজ করা হয়। তাঁর জায়গায় দায়িত্ব দেওয়া হয় নন্দন পাণীগ্রাহীকে।

First published: 10:18:50 AM Nov 28, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर