corona virus btn
corona virus btn
Loading

আমফানে নষ্ট ৬০০ কোটির ফসল! মাথায় হাত চাষীদের

আমফানে নষ্ট ৬০০ কোটির ফসল! মাথায় হাত চাষীদের

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, এখনও পর্যন্ত ৫৭০ কোটি টাকার ফসলের ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। প্রতিটি ব্লকের বিস্তারিত ক্ষয়ক্ষতি রিপোর্ট রাজ্যের কাছে পাঠানো হচ্ছে।

  • Share this:

# বর্ধমান: আমফানে পূর্ব বর্ধমান জেলায় কৃষিতে প্রায় ৬০০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।  ঝড় থামার পরই প্রাথমিক রিপোর্টে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করেছিল জেলা প্রশাসন। প্রায় ৩০০ কোটি টাকার ফসলের ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিক রিপোর্টে মনে করা হয়েছিল। কিন্তু বিস্তারিত রিপোর্ট আসার পর দেখা যাচ্ছে এই জেলায় ক্ষতির পরিমাণ প্রাথমিকের যে আশঙ্কা তার দ্বিগুণের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, এখনও পর্যন্ত ৫৭০ কোটি টাকার ফসলের ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। প্রতিটি ব্লকের বিস্তারিত ক্ষয়ক্ষতি রিপোর্ট রাজ্যের কাছে পাঠানো হচ্ছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে বোরো ধান চাষের। 358 কোটি টাকারও বেশি বোরো ধানের ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এই জেলায় ১ লক্ষ ৪২ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো ধানের চাষ হয়েছিল। এবার এই ধানের চাষ হয়েছিল একটু দেরিতে। সেই কারণে ধান কাটার সুযোগ পাননি কৃষকরা। তাই আমফান আসার পূর্বাভাস থাকলেও  কৃষকরা ধান কাটতে পারেন নি। এই ধানের পুরোটাই নষ্ট হয়ে গিয়েছে।বেশিরভাগ ধান গাছ ঝড়ে মাটিতে পড়ে গিয়েছে। বৃষ্টির জলে কাদায় মাখামাখি হয়ে গিয়েছে। সেই ধানের কিছুমাত্রই আর আদায় করা যাবে না বলে জানিয়েছেন কৃষকরা। এছাড়াও অনেক ধান কাটা অবস্থায় মাঠে ফেলে রাখা হয়েছিল। সেই সব শুকনো ধান গাছ ঝড়ে  উড়ে গিয়েছে। অনেক ধান বৃষ্টিতে ভিজে পচে গিয়েছে  বলেও জানিয়েছেন কৃষকরা।

জেলা প্রশাসনের হিসেব অনুযায়ী ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে তিল চাষের। প্রায় ৫৬ কোটি টাকার তিল চাষ নষ্ট হয়ে গিয়েছে এই জেলায়। এছাড়াও কালনা মহকুমা সহ জেলার বেশ কয়েকটি ব্লক মিলিয়ে  সাড়ে ৭ কোটি টাকার সবজির ক্ষতি হয়েছে। বাদাম চাষের প্রায় পুরোটাই নষ্ট হয়ে গিয়েছে। একইভাবে নষ্ট হয়েছে ব্যাপক পরিমাণ পাট চাষ। কালনা কাটোয়া  মহকুমা ব্যাপকভাবে আখ চাষ হয়। সেই আখ চাষ নষ্ট হয়েছে আমফানে। ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে মুগ ডাল চাষের। ক্ষতি হয়েছে আমসহ অন্যান্য ফলের। জেলা কৃষি দফতর সূত্রে জানা গেছে, আমফানে সব ব্লকই কমবেশি ক্ষতিগ্রস্থ। তবে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন ১২ চাষীদের অনেকেই।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: May 23, 2020, 5:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर