corona virus btn
corona virus btn
Loading

জামালপুরে একদিনে আক্রান্ত ৩৯ জন! পরিষেবা বন্ধ হয়ে গেল হাসপাতালে

জামালপুরে একদিনে আক্রান্ত ৩৯ জন! পরিষেবা বন্ধ হয়ে গেল হাসপাতালে

একসঙ্গে জামালপুর ব্লকের এতজন আক্রান্ত হওয়ায় এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমানের জামালপুর ব্লকে করোনার সংক্রমণ  ব্যাপক আকার ধারণ করেছে। একদিনে এই ব্লকে নতুন করে ৩৯ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে জামালপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রের চিকিৎসক নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মী মিলিয়ে ন’জন আক্রান্ত হয়েছেন। একসঙ্গে এত জন আক্রান্ত হওয়ায় ওই হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবা একরকম বন্ধ হয়ে গিয়েছে। জরুরি বিভাগ ছাড়া অন্য সব বিভাগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। একসঙ্গে জামালপুর ব্লকের এতজন আক্রান্ত হওয়ায় এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

প্রশাসনের দেওয়া সর্বশেষ রিপোর্টে গত ২৪ ঘণ্টায় জামালপুর ব্লকে ৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানানো হয়েছিল ঌ অথচ ওই ব্লকে ৩৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই জেলা প্রশাসনের দেওয়া তথ্য নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।এত সংক্রমণ ধরা পড়লেও তা কেন কমিয়ে দেখানো হচ্ছে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বিভিন্ন মহলে।একসঙ্গে জামালপুর ব্লকের এতজন আক্রান্ত হওয়ায় এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

স্থানীয় প্রশাসন ও ব্লক স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, জামালপুর ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে একসঙ্গে ন জন আক্রান্ত হয়েছেন। তার মধ্যে দু’জন চিকিৎসক, তিনজন নার্স ও চারজন স্বাস্থ্য কর্মী রয়েছেন। তাদের সকলের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এই ঘটনার পর আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন হাসপাতালে অন্যান্য নার্স ও স্বাস্থ্য কর্মীরা। আক্রান্তদের সংস্পর্শে আসা চিকিৎসক নার্স স্বাস্থ্যকর্মীদের হোম আইসোলেশনে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে হাসপাতলে পরিষেবা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। ওয়ার্ডে কেউ যেতে চাইছেন না। স্বাস্থ্যকর্মীরা বলছেন, প্রয়োজনীয় সংখ্যক পিপিই কিটও নেই।  হাসপাতালের জরুরি বিভাগ ছাড়া বাকি সব বিভাগ বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।  রোগীদের অন্য হাসপাতালে রেফার করার কথা পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

ওই চিকিৎসক নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের গত ২৩ জুলাই  নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। ওই দিন ব্লকের আরও অনেক বাসিন্দার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তার মধ্যে আরও তিরিশ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এর মধ্যে জামালপুরের পাঁচজন বাসিন্দা রয়েছেন।এছাড়াও কাঁসড়া এলাকায় তিনজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কৃষ্ণচন্দ্রপুর, সোনাগড়িয়া, বাজে পুকুর, বাহাদুরপুর,নপাড়া, বড় টিকরা গ্রামে দুজন করে বাসিন্দা করোনাআক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়াও হিরণ্যগ্রাম, চকদিঘি, কাড়ালা,তুরুক ময়না, দত্তপাড়া, শ্রীমনপুর, শুড়েকালনা, বিদ্যাবতীপুর এলাকাতেও করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: August 1, 2020, 4:02 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर