corona virus btn
corona virus btn
Loading

শবরদের মনে জমে ক্ষোভ, ঘর না পেয়ে খোলা আকাশের নিচেই কাটছে দিন

শবরদের মনে জমে ক্ষোভ, ঘর না পেয়ে খোলা আকাশের নিচেই কাটছে দিন
Photo- Video Grab

জেলাশাসক অবশ্য বলছেন, দ্রুত সমস্যা মিটবে

  • Share this:

#ঝাড়গ্রাম: খাতায় কলমে প্রশাসন পুনর্বাসন দিয়েছে। তবুও গাছের তলায় অসহায় দিনযাপন। ঝাড়গ্রামের কাটাবাড়িতে তিরিশটি শবর পরিবার থাকছেন খোলা আকাশের নীচে ত্রিপল খাটিয়ে থাকছেন। নিউজ18 বাংলা এই খবর দেখানোর পরেও প্রশাসনের কেউ একবার ফিরেও তাকায়নি। জেলাশাসক অবশ্য বলছেন, দ্রুত সমস্যা মিটবে।

লোধা শবরদের শান্ত শিষ্ট দিনযাপন। লাল মাটির ধূসর মেখে শৈশব বড় হয়। দুপুর রোদে প্রতিদিনের গল্প জমে। বাচ্চা বুড়োর জুটি নিজের মত করে আনন্দ খুঁজে নেয়। নিশ্চিন্ত ছায়ায় ঘুমের আলসেমি দেখে কাটাবাড়ি। অভাব অনটনের মধ্যে অনেক না পাওয়া নিয়ে বেঁচে ঝাড়গ্রামের কাটাবাড়ি।

আরও পড়ুন - সিঁথি রাঙালেন সিঁদুর দিয়ে, কখনও আবার হাজির বাইজি অবতারে, সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্টে ঝড় তুললেন হাসিন

ঝাড়গ্রাম শহরের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে কাটাবাড়ি। জেলাশাসকের বাংলো থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে। তিরিশটি শবর পরিবারের অগোছালো সংসারের দিকে কেউ ফিরেও তাকায় না। প্রশাসন পুনর্বাসন দিয়েছে। পাঁচ বছর আগে অ্যাসবেসটসের তৈরি ঘর ভেঙে গিয়েছে। ছাউনি নেই। কয়েকটা দেওয়াল শুধু দাঁড়িয়ে আছে। নেই বিদ্যুৎ। নেই রোজগার। নিউজ18 বাংলা এই নেই রাজ্যের খবর দেখায়। তাতে অবশ্য হুঁশ ফেরেনি প্রশাসনের। কাউন্সিলর ব্যক্তিগত উদ্যোগে কিছু সাহায্য করলেও জেলাপ্রশাসনের দেখা পাওয়া যায়নি। কাটাবাড়ির শবরেরা আছে যেমন তেমন করে।

পঁচিশ কিলোমিটার দূরে লালগড়ের পুর্নাপানি গ্রামে শবরদের খোঁজ নিতে বারবার ছুটে গিয়েছেন ঝাড়গ্রামের জেলাশাসক। ঘরের কাছের শবররা কি এতই পর? কাটাবাড়ির শবরদের মনে ক্ষোভ জমে।

আরও দেখুন

First published: September 2, 2019, 6:25 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर