জিয়াগঞ্জে স্বামী-স্ত্রী-শিশুকে খুন, বাড়ি থেকে উদ্ধার গলাকাটা দেহ

জিয়াগঞ্জে স্বামী-স্ত্রী-শিশুকে খুন, বাড়ি থেকে উদ্ধার গলাকাটা দেহ
জিয়াগঞ্জে স্বামী-স্ত্রী-শিশুকে খুন

প্রাথমিক শিক্ষক এবং তাঁর গর্ভবতী স্ত্রী ও ৬ বছরের ছেলেকে গলা কেটে খুন। দশমীর দুপুরে বাড়ি থেকে তিনজনের দেহ উদ্ধার।

  • Share this:

#মুর্শিদাবাদ: মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জে প্রাথমিক শিক্ষক এবং তাঁর গর্ভবতী স্ত্রী ও ৬ বছরের ছেলেকে গলা কেটে খুন। দশমীর দুপুরে বাড়ি থেকে তিনজনের দেহ উদ্ধার। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে টানাপোড়েনের জেরেই কি এই খুন ? নাকি জমি সংক্রান্ত বিবাদ বা অন্য কোনও কারণ? সব দিকই খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জের লেবুবাগানে। বছর দুয়েক ধরে এই লেবুবাগানে স্ত্রী বিউটি ও ছেলে আর্যকে সঙ্গে নিয়ে থাকতেন প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক বন্ধুপ্রকাশ পাল। বিউটি আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা। দশমীতে সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ বাজার করে বাড়ি ফেরেন বন্ধুপ্রকাশ পাল। আত্মীয়দের সঙ্গে ফোনে কথাও বলেন। প্রতিবেশীদের দাবি, এর কিছুক্ষণ পরেই তাঁরা বন্ধুপ্রকাশ পালের বাড়ি থেকে আর্তনাদ শোনেন। গিয়ে দেখেন, এক যুবক বাড়ির ভিতর থেকে ছুটে বেরিয়ে গেলেন। বাড়ির ভিতরে তখন একটি ঘরে বন্ধুপ্রকাশ পালের গলা কাটা দেহ। পাশের ঘরে তাঁর স্ত্রী ও ছেলের রক্তাক্ত দেহ।

স্বামী-স্ত্রী-শিশুকে কে খুন করল? প্রতিবেশীদের দাবি, এক যুবককে তাঁরা বাড়িতে থেকে বেরিয়ে যেতে দেখেছেন। ওই যুবক কে? বিবাববহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে টানাপোড়েনের জেরেই কি খুন? প্রতিবেশীদের বয়ান মতো ওই যুবকের ছবি আঁকার চেষ্টা করছে পুলিশ।

পাল দম্পতির মোবাইল ফোনের কললিস্টও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সেখান থেকেও গুরুত্বপূর্ণ সূত্র মিলতে পারে বলে আশা তদন্তকারীদের। জমি সংক্রান্ত বচসা থেকেও খুনের সম্ভাবনা তাঁরা উড়িয়ে দিচ্ছেন না। এ নিয়ে পাল পরিবারের এক আত্মীয়কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ।

First published: 02:27:01 PM Oct 10, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर