Bangla News: পরপর দুই মৃতদেহ, বালি-বেলুড়ে গঙ্গায় হলটা কী! মিলছে রহস্যের গন্ধ...

Bangla News: বালিতে গঙ্গায় উদ্ধার হওয়া দেহের ছবি রাজ্যের বিভিন্ন থানায় পাঠিয়ে যুবতীর পরিচয় খোঁজার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

Bangla News: বালিতে গঙ্গায় উদ্ধার হওয়া দেহের ছবি রাজ্যের বিভিন্ন থানায় পাঠিয়ে যুবতীর পরিচয় খোঁজার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

  • Share this:

    #বালি: বালি ব্রিজের নিচে জেটিয়া গঙ্গার ঘাটে এক যুবতীর দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল! ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে বালি থানার পুলিশ! মৃতদেহটি গঙ্গার জলে ভেসে এসে গঙ্গার ঘাটে আটকে গিয়েছে বলে পুলিশের অনুমান। মৃত্যুর কারণ খুঁজতে দেহ পাঠানো হচ্ছে ময়নাতদন্তে। অন্যদিকে উদ্ধার হওয়া দেহের ছবি রাজ্যের বিভিন্ন থানায় পাঠিয়ে যুবতীর পরিচয় খোঁজার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

    এই ঘটনার রেশ মিটতে না মিটতেই আরও একটি দেহ উদ্ধার হয় গঙ্গায়। বেলুড়ের বি কে পাল জগন্নাথ ঘটে উদ্ধার এক যুবকের দেহ উদ্ধার হয়। গতকাল দুপুরে গঙ্গায় তলিয়ে যায় ভোট বাগানের বাসিন্দা সাহিল আনসারী। ডিজেস্টার ম্যানেজমেন্ট গ্রুপের ডুবুরি নামিয়ে দেহ উদ্ধার করা হয় আজ সকালে। একই দিনে বালি ও বেলুড়ে দুটি দেহ উদ্ধার হল গঙ্গায়। তবে, যুবকের পরিচয় জানা গেলেও যুবতীর পরিচয় এখনও জানা যায়নি। ওই যুবতীকে খুন করা হয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

    অপরদিকে, দক্ষিণ ২৪ পরগনার জিবনতলা থানা মঠেরদীঘি গ্রামের জিয়ারুল মিস্ত্রির নাবালক পুত্র সন্তান আনারুল মিস্ত্রিকে রবিবার সাপে কামড়ায়। পরিবার জানিয়েছে, মাঠে খেলার সময় তাঁর পায় কিছু একটা কামড়ালে সে বাড়িতে গিয়ে জানায়। সঙ্গে সঙ্গে তাঁর পরিবার তাকে নিয়ে মঠের দীঘি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে তাঁকে দীর্ঘক্ষণ বসিয়ে রেখে নামমাত্র একটা ইনজেকশন দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। বারবার চিকিৎসককে জানালে তিনি তার কর্ণপাত করেননি। অবশেষে ছেলেটি যখন প্রায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে, তখন তাঁকে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়।

    আরও পড়ুন: 'বিজেপিকে একটিও ভোট নয়', যোগীর রাজ্যের জেলায়-জেলায় তুঙ্গে উঠবে কৃষক আন্দোলন!

    ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসকরা তাকে আনারুলকে (০৯) মৃত বলে ঘোষণা করেন। এই ঘটনা পরিবার অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছে মঠেরদীঘি হাসপাতালের বিরুদ্ধে তারা দাবি করছেন সঠিক সময়ে চিকিৎসা করালে তার শিশুকে এইভাবে হারাতে হতো না তবে তিনি আরো দাবি করছেন এই ভাবে যাতে আর অন্য কোন পরিবারের এমন ঘটনা না ঘটে সেদিকে নজর দিতে। দেহটি উদ্ধার করে ক্যানিং থানার পুলিশ ময়নাতদন্তে নিয়ে যায়।

    Published by:Suman Biswas
    First published: