অবৈধভাবে জল চুরি আটকাতে পাম্প সিল করতেই জলসঙ্কটে শহরের ১৫০০ বাসিন্দা

অবৈধভাবে জল চুরি আটকাতে পাম্প সিল করতেই জলসঙ্কটে শহরের ১৫০০ বাসিন্দা

জল-চুরি আটকাতে বিশেষ উদ্যোগ। কাঁকসা, বিজড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে বেআইনিভাবে ভূগর্ভস্থ জল তোলা বন্ধ করে দিল মহকুমা প্রশাসন। জল না পেয়ে নাজেহাল টাউনশিপের ৬০০ আবাসনের প্রায় ১৫০০ বাসিন্দা। শিকেয় অফিস, স্কুল, রান্না।

  • Share this:

#দুর্গাপুর: জল-চুরি আটকাতে বিশেষ উদ্যোগ। কাঁকসা, বিজড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে বেআইনিভাবে ভূগর্ভস্থ জল তোলা বন্ধ করে দিল মহকুমা প্রশাসন। সিল করে দেওয়া হয়েছে ছ’টি অনুমোদনহীন সাবমারসিবল পাম্প। অভিযানের পরই তীব্র জলসংকটে বিজড়া এলাকার স্যাটেলাইট টাউনশিপ।

মাটির নীচে জলস্তর নেমে যাওয়ায় দুর্গাপুরের বেশ কিছু এলাকাকে রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত করেছে স্টেট ওয়াটার ইনভেস্টিগেশন ডাইরেক্টরেট। প্রশাসনের অনুমোদন ছাড়াই এখানে সাবমারসিবল পাম্প বসিয়ে অবাধে জলচুরি চলছে বলে অভিযোগ। এরপরই অভিযানে নামে মহকুমা প্রশাসন।

বুধবার বিজড়া এলাকায় অভিযান হয়। বন্ধ করে দেওয়া হয় চারটি পাম্প। শুক্রবার কাঁকসার রাজবাঁধ এলাকায় ফের অভিযানে সিল করা হয় দুটি সাবমাসিবল পাম্প। অবৈধভাবে ভূগর্ভস্থ জল তোলা বন্ধ হতেই তীব্র জলসংকটে জেরবার দুর্গাপুরের বেসরকারি স্যাটেলাইট টাউনশিপ। বুধবার থেকে জল না পেয়ে নাজেহাল টাউনশিপের ৬০০ আবাসনের প্রায় ১৫০০ বাসিন্দা। শিকেয় অফিস, স্কুল, রান্না।

বাসিন্দাদের অভিযোগ, ফ্ল্যাট কেনার সময়েই জলের টাকা জমা দিয়েছিলেন। কিন্তু সেই টাকা জমা পড়েনি পুরসভায়। পুরসভার জলের পাশাপাশি মাটির নীচ থেকে বেআইনিভাবে তোলা জল-ই তাঁদের জোগান দিত কর্তৃপক্ষ।

একাধিক বৈঠকের পরও জলের টাকা জমা দেয়নি টাউনশিপ কর্তৃপক্ষ। দাবি মেয়রের। জলের ব্যবস্থার আশ্বাস দেন কর্তৃপক্ষ। মাটির নীচ থেকে বেআইনিভাবে জল তোলা আটকাতে আরও অভিযান চালাবে দুর্গাপুর মহকুমা প্রশাসন।

First published: July 30, 2019, 2:18 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर