নতুন জীবনে পা দিলেন ১০১ দম্পতি, গণবিবাহকে ঘিরে মেলা বসল বর্ধমানে

প্রতীকী চিত্র ।

বিয়ে নিয়ে অনেকেই অনেক স্বপ্ন দেখেন। তাই পাত্র-পাত্রীদের মনের মতো করে এই বিয়ের অনুষ্ঠান সাজানো হয়েছিল।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: করোনা আবহের মাঝেই এক হল ১০১ জোড়া হাত। শীতের সন্ধ্যায় বিবাহ বন্ধনে বাধা পড়লো ১০১ জোড়া যুবক-যুবতী। এই বিশাল গণবিবাহ অনুষ্ঠানের সাক্ষী থাকলেন হিন্দু-মুসলিম উভয় সম্প্রদায়ের কয়েক হাজার বাসিন্দা। বর্ধমান শহরের কাঞ্চননগরে কঙ্কালেশ্বরী কালী মন্দির লাগোয়া মাঠে অনুষ্ঠিত হল এই গণবিবাহ উৎসব। এই নিয়ে সাতবার এ ভাবে বিশাল আকারে গণবিবাহ উৎসব অনুষ্ঠিত হল।

গণ বিবাহ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই সাজো সাজো রব পড়ে গিয়েছিল বর্ধমানের কাঞ্চননগরে। শুধু রীতি মেনে বিয়ের অনুষ্ঠান নয়, ছিল বরযাত্রী কনেযাত্রীদের আপ্যায়ন, তাঁদের জন্য খাওয়া-দাওয়ার বিপুল আয়োজনও। বরপক্ষ হাজির হন বর্ধমানের টাউন হলে। সেখান থেকে একসঙ্গে একরকম শোভাযাত্রা করেই বিকেল বিকেল কাঞ্চননগরের দিকে বর নিয়ে রওনা দেয় তাঁরা। হিন্দু, মুসলিম, বাঙালি অবাঙালি সব ধরণের পাত্রপাত্রী ছিলেন। বিয়ের অনুষ্ঠান উপলক্ষে মেলার রূপ নেয় কাঞ্চননগরের কঙ্কালেশ্বরী মন্দিরের মাঠ।

কাঞ্চননগর কঙ্কালেশ্বরী কালী মন্দিরের মাঠে বিশাল বিয়ের মন্ডপ তৈরি করা হয়েছিল। আর এই বিয়ের অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী থেকে শুরু করে বিশিষ্টজনেরা। বিয়ের অনুষ্ঠানের সূচনা করে এই ধরনের সামাজিক কর্তব্য পালনের জন্য উদ্যোক্তাদের ভূয়সী প্রশংসা করেন রাজ্যের দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু। উপস্থিত ছিলেন ক্ষুদ্র কুটির শিল্প প্রাণী সম্পদ বিকাশ দফতরের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

নবদম্পতিকে উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে উপহারে ভরিয়ে দেওয়া হয়। সোনার আংটি থেকে শুরু করে সোনার নাকছাবি, সাইকেল, আলুর বস্তা সহ সংসারের প্রয়োজনের যাবতীয় সামগ্রী দেওয়া হয়। এ ছাড়াও তাঁরা যাতে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের সুবিধা পান তারও ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে বলে উদ্যোক্তারা জানিয়েছেন। এই গণবিবাহের মূল আয়োজক খোকন দাস বলেন, সারা বছর ধরে এই গণবিবাহের প্রস্তুতি চলে। পাত্র পাত্রীর নাম নথিভুক্ত করা হয়। অনেকেই আর্থিক কারণে আড়ম্বরের সঙ্গে বিয়ের আয়োজন করতে পারেন না। অথচ বিয়ে নিয়ে অনেকেই অনেক স্বপ্ন দেখেন। তাই পাত্র-পাত্রীদের মনের মতো করে এই বিয়ের অনুষ্ঠান সাজানো হয়েছিল।

Published by:Simli Raha
First published: