এগরায় ফের ট্যারান্টুলার আতঙ্ক! মাকড়শার কামড়ে অসুস্থ স্থানীয় বাসিন্দা

নিজস্ব চিত্র

এগরায় ফের ট্যারান্টুলার আতঙ্ক! মাকড়শার কামড়ে অসুস্থ স্থানীয় বাসিন্দা

  • Share this:

    #এগরা: ফের ট্যারান্টুলার আতঙ্ক এগরায় । ট্যারান্টুলার কামড়ে অসুস্থ স্থানীয় বাসিন্দা দিলীপ পাত্র। মাকড়শা কামড়ানোর পরই শুরু হয় অসহ্য যন্ত্রণা! তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মাকড়সাটিকেও ধরে নিয়ে যাওয়া হয় ধরে হাসপাতালে।

    ক্রমে গোটা রাজ্যে হানা দিচ্ছে বিষাক্ত ট্যারান্টুলা মাকড়সা। আতঙ্কে রাজ্যবাসী। লোমশ এই আটপেয়িকে দেখা যায় দুর্গাপুরের কাঁকসার দুটি জায়গায়। গোপালপুর ও বিদবিহারে পুরনো বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় বিষাক্ত ওই মাকড়সা। সেগুলিকে বনদফতরের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

    বাঁকুড়ার উপরডাঙাতেও একটি বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে ট্যারান্টুলা। ঝাড়গ্রামের গোপীবল্লভপুরের পর এবার বৈতায়ও হানা দিল ট্যারান্টুলা। মাকড়সাটি বোতলবন্দি করা হয়। আরামবাগেও পাড়ি দিয়েছে লোমশ এই আটপেয়ী! মোহনপুর ও রোদুলপুরে বাড়ির ভিতর থেকে উদ্ধার ট্যারান্টুলা।

    এরআগে, পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরার রঘুনাথপুর ও কামারশাল, বেলদা এমনকী কলকাতাতেও দেখা মেলে ট্যারান্টুলার। ট্যারান্টুলা আতঙ্কে তটস্থ পূর্ব মেদিনীপুরও ৷ দিঘা-সহ পূর্ব মেদিনীপুরের মোট ছ’টি এলাকা থেকে ছ’টি বিষাক্ত মাকড়সা ধরা পড়েছিল। অন্যদিকে, হাওড়ার বাগনানে তিনটি লোমশ মাকড়সা দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। তারমধ্যে একটিকে ধরে বন দফতরের হাতে তুলে দেন তাঁরা। বনাধিকারিকরা মাকড়শাটিকে ট্যারান্টুলা বলে চিহ্নিত করেন।

    লোমশ মাকড়সা কি সত্যি ট্যারান্টুলা? উত্তর যাই হোক না কেন, আটপেয়ীর আতঙ্ক কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না রাজ্যবাসীর।

    আরও পড়ুন-জ্বালানির জ্বালায় মহার্ঘ ইলিশ ! ডিজেলের দাম বাড়ায় আতঙ্কে মৎস্যজীবীরা

    First published: