বর্ধমান স্টেশনে বিপর্যয়ের বলি ১, রাতভর চলল ধ্বংসস্তূপ সরানোর কাজ

বর্ধমান স্টেশনে বিপর্যয়ের বলি ১, রাতভর চলল ধ্বংসস্তূপ সরানোর কাজ
ধ্বংসস্তূপ বর্ধমান স্টেশন

মূল ভবনের একাংশ ভেঙে মৃত এক। রাতে বর্ধমান মেডিক্যালে মৃত্যু। হাসপাতালে ভরতি আরও এক।

  • Share this:

#বর্ধমান: ধ্বংসস্তূপ বর্ধমান স্টেশন। শনিবার রাতে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল স্টেশনের একাংশ। মূল ভবনের একাংশ ভেঙে মৃত এক, আহত বেশ কয়েকজন। রাতভর চলল ধ্বংসস্তূপ সরানোর কাজ। শতাব্দী প্রাচীন স্টেশনের সংস্কার হলেও ধরা পড়েনি রোগ। রেলের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ বাসিন্দাদের।

এখনও কয়েকটা অংশ নড়বড়ে রয়েছে । দুর্বল অংশ ঠেকিয়ে রাখা হয়েছে লোহার বিম দিয়ে, আনা হয়েছে সিসিক্রিট। যাত্রীদের যাতায়াতের জন্য বিকল্প পথ হিসেবে পার্সেল রোড খোলা হয়েছে।

রাত ৮.১৯টা

তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ল বর্ধমান স্টেশনের একাংশ। মুহূর্তের মধ্যে মাটিতে মিশে গেল স্টেশনের মূল প্রবেশদ্বার লাগোয়া দোতলা ভবনের একাংশ। ব্যস্ত সময়ে তখন স্টেশনে যাত্রীদের ভিড়।

রাত ৮.৫টা

দুর্ঘটনার কিছুক্ষণ আগে থেকেই ভবনের এই অংশ ভাঙতে শুরু করে। তাতেই অনেকে এই জায়গা থেকে সরে আসেন। এর কিছুক্ষণ পরই হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে বিল্ডিংয়ের এই অংশ। এক, দু’বার নয়। রাত আটটার পর থেকে দফায় দফায় ভেঙে পড়ে মূল ভবনের এই অংশ।

রেল কর্মীরাই প্রথমে উদ্ধারকাজ শুরু করেন। ফাঁকা করে দেওয়া হয় ১ নম্বর প্লাটফর্ম। পণ্য নিয়ে যাওয়ার রাস্তা দিয়ে যাত্রীদের স্টেশন থেকে বের করে আনা হয়।

পুলিশ-দমকল-বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী স্টেশনের ২টি প্লাটফর্ম ফাঁকা করে দেয়। তবে ধ্বংসস্তূপ সরাতে ঘণ্টা দুয়েক সময় লেগে যায়।

১০৩ বছরের পুরোন বর্ধমান স্টেশন। শতাব্দী প্রাচীন ভবনে চলছিল সংস্কার ও সৌন্দর্যায়নের কাজ। তার পরও কীভাবে এমন দুর্ঘটনা?

First published: 09:27:30 AM Jan 05, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर