দক্ষিণবঙ্গ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কুয়াশার জের, জাতীয় সড়কে দাউদাউ করে জ্বলল গাড়ি, গাড়ির ভিতরেই জীবন্ত দগ্ধ হয়ে মৃত্যু যাত্রীর

কুয়াশার জের, জাতীয় সড়কে দাউদাউ করে জ্বলল গাড়ি, গাড়ির ভিতরেই জীবন্ত দগ্ধ হয়ে মৃত্যু যাত্রীর

পূর্ব বর্ধমানের গলসির গলিগ্রামে দু নম্বর জাতীয় সড়কে মঙ্গলবার সকালে দুর্ঘটনা ঘটে

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#পূর্ব বর্ধমান: জাতীয় সড়কে দাউ দাউ করে জ্বলছে দুটি গাড়ি, প্রাণভয়ে ছুটছেন পথচারীরা...কুয়াশার জেরে এমনই ভয়াবহ দুর্ঘটনার সাক্ষী থাকল ২ নম্বর জাতীয় সড়ক। গাড়ির ভিতর দগ্ধ হয়ে মৃত্যু ১ যাত্রীর, গুরুতর আহত আরও ১জন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পূর্ব বর্ধমানের গলসির গলিগ্রামে দু নম্বর জাতীয় সড়কে মঙ্গলবার সকালে দুর্ঘটনা ঘটে। গত দু দিনের মতো এদিনও সকাল থেকেই ঘন কুয়াশায় ঢেকে ছিল চারপাশ। কয়েক হাত দূরের জিনিসও ভালভাবে দেখা যাচ্ছিল না। দৃশ্যমানতা একেবারেই কম থাকায় হেড লাইট জ্বেলে ধীর গতিতে চলাচল করছিল বাস-লরি। তার মাঝেই দুর্ঘটনা। বর্ধমান থেকে দুর্গাপুরের দিকে যাওয়া একটি চার চাকার গাড়িকে পেছন থেকে ধাক্কা মারে একটি বড় মালবাহী ট্রাক। দুর্ঘটনার পর পরই আগুন ধরে যায় চার চাকার গাড়িটিতে। এরপর আগুন ধরে মালবাহী ট্রাকটিতেও। মালবাহী ট্রাকটির চালক গাড়ি থেকে নেমে পড়েন। কিন্তু চার চাকা গাড়ির দুই আরোহী গাড়ির মধ্যেই আটকা পড়েন।

স্থানীয় বাসিন্দা ও অন্যান্য গাড়ি চালকরা কোনও রকমে সেই গাড়ির চালককে উদ্ধার করেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় । ততক্ষনে গোটা গাড়িতে আগুন ছড়িয়ে পড়েছে। আগুনের কারণেই আরও একজনকে উদ্ধার করা যায়নি। দুর্ঘটনায় আহত হওয়ার পর গাড়ির ভেতর আটকে জীবন্ত দগ্ধ হয়ে মৃত্যু হয় তাঁর। জানা গিয়েছে, মৃতের নাম শেখ রফিকুল, খন্ডঘোষের কেওদিয়া গ্রামের বাসিন্দা, পেশায় কম্বল ব্যবসায়ী। কাজের সূত্রে দুর্গাপুর যাচ্ছিলেন। গাড়িতে কম্বল মজুত ছিল, কম্বল থাকার জন্যই আগুন বিধ্বংসী চেহারা নেয় বলে অনুমান পুলিশের।

দুর্ঘটনার জেরে দু নম্বর জাতীয় সড়কে দীর্ঘক্ষণ যান চলাচল ব্যাহত হয়। খবর পেয়ে বর্ধমান থেকে দমকলের একটি ইঞ্জিন গিয়ে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে। বেলা দশটা নাগাদ আগুন নেভানো সম্ভব হয়। পুলিশ গাড়ি দুটি সরানোর পর জাতীয় সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

Published by: Rukmini Mazumder
First published: December 24, 2019, 4:52 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर