ঠিক যেন ব্রেকআপ সং! সরস্বতী বিসর্জনে কানে হেডফোন গুঁজেই দেদার নাচ

News18 Bangla
Updated:Feb 12, 2019 11:57 PM IST
ঠিক যেন ব্রেকআপ সং! সরস্বতী বিসর্জনে কানে হেডফোন গুঁজেই দেদার নাচ
Photo : News18
News18 Bangla
Updated:Feb 12, 2019 11:57 PM IST

আসানসোল : একেই বোধ হয় বলে সাপ মরলো লাঠি ভাঙলো না। বিসর্জনের নাচও হলো আবার শব্দ দূষণও হলো না। মাধ্যমিকের সময় অভিনব বিসর্জন হয়ে গেল কুলটিতে। সরস্বতী বিসর্জনে কানে হেডফোন নিয়ে ধুমধারাক্কা নাচ করলেন মিঠানি সাথী ক্লাবের সদস্যরা। আইন বাঁচিয়ে বিসর্জনের অনাবিল আনন্দে তাঁদের মাততে দেখা গেল মঙ্গলবার। বিসর্জনে দেখা গেল পোস্টার “নিঃশব্দ বিসর্জনে - বিন্দাস আনন্দে”

মঙ্গলবারের বিকেল। পথ চলতি মানুষ দেখলেন মাইক বক্স ঢাক ঢোল কোথাও কিছু নেই। তবু রাস্তার মধ্যে একদল ছেলে মেয়ে হাত পা ছুড়ছে। কেউ আবার মাঝেমধ্যে হাততালি দিচ্ছে। কারও মুখ দিয়ে হঠাৎ হঠাৎ অদ্ভূত সব আওয়াজও বেরিয়ে আসছে। সঙ্গে নৃত্য। একদল ছেলেছোকরার এমন কাণ্ডকারখানা দেখে অনেকেই ভ্রূ কুঁচকেছিলন। ভালভাবে খেয়াল করে দেখা গেল, সাইকেল-ভ্যানে চেপে চলেছেন মা সরস্বতী। পেছনে চলছে নিঃশব্দে নৃত্য।

পুজোর প্রথম দিন থেকেই পড়ুয়াদের ব্যাপারে সিরিয়াস সাথী ক্লাব। বাংলা ডাকের সাজে সরস্বতী প্রতিমার পেছনে এবার দেখা যায় একটি পোস্টার। যেখানে লেখা ছিল মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের প্রতি আমার রইল আর্শীবাদ। অভিনব সেই ভাবনা এবার ফেসবুকে ভাইরাল হয়। ক্লাবের সদস্য অয়ন চট্টরাজ, শ্রেয়া পাত্র, পল্লবী পাত্ররা বলেন এরপরে কি আর প্রতিমা বিসর্জনের সময় মাইক বাজিয়ে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের বিরক্ত করা যায় ? আবার বিসর্জনে একটু কোমর না দোলালে পুজোটাও যেন অসম্পূর্ণ লাগে। মাথা খাটিয়ে তাই অভিনব বিসর্জনের ব্যবস্থা করেছেন। ক্লাব সদস্যরা বলেন হিন্দি রিমিক্স ‘আঁখ মারে’ কিংবা ভোজপুরি গান ‘গোরি তেরি চুনরি লাল লাল রে’ থেকে গুরু রানধাওয়ার ‘পাটোলা বানকে’ সবই বাজলো, কিন্তু কাউকে বিরক্ত না করেই। মাইকের বদলে নিজেদের মোবাইলে গান চালিয়ে কানে হেডফোন গুঁজে বিসর্জনে তাঁরা রওনা দিয়েছিলেন বিসর্জনের শোভাযা

ত্রায়। সঙ্গে ছিল আবির খেলা।

প্রথমে নিঃশব্দ নাচানাচি দেখে অনেকে হাসাহাসি করলেও ব্যাপারটা বুঝতে পেরে ক্লাব সদস্যদের প্রশংসাই করেছেন কিন্তু স্থানীয় বাসিন্দারা।

Loading...

First published: 11:57:33 PM Feb 12, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर