যাত্রীদের স্বার্থেই উচ্ছেদ অভিযান চলবে, বারুইপুরের ঘটনার পরও অনড় রেল

বারুইপুরের ঘটনার পরও অনড় রেল কর্তৃপক্ষ।

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Nov 22, 2017 10:47 AM IST
যাত্রীদের স্বার্থেই উচ্ছেদ অভিযান চলবে, বারুইপুরের ঘটনার পরও অনড় রেল
File Photo
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Nov 22, 2017 10:47 AM IST

#কলকাতা: বারুইপুরের ঘটনার পরও অনড় রেল কর্তৃপক্ষ। যাত্রীদের জন্যই এই সিদ্ধান্ত বলে দাবি। জবরদখলের কারণেই গতি কমছে ট্রেনের। ঠিক সময়ে চলছে না ট্রেন। সে কারণেই শিয়ালদহ ডিভিশনে উচ্ছেদ অভিযান চলবে বলেই জানানো হয়েছে। এই কজের জন্য ইতিমধ্যেই রাজ্যের সাহায্য চাওয়া হয়েছে।

যাত্রী নিরাপত্তার কারণেই জবরদখলকারীদের সরাতে হবে এই বার্তা আগেই দিয়েছিল রেল। মাঝেমধ্যে জবরদখলকারীদের হঠাতে বিভিন্ন স্টেশনে অভিযান চালানো হয়। সোমবার বারুইপুরের ঘটনা সব সীমা ছাড়ায়। তারপরেও প্রতিদিন উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিল পূর্ব রেলের শিয়ালদহ ডিভিশন। উত্তরে বনগাঁ-বারাসত-বারাকপুর থেকে দক্ষিণে ডায়মন্ডহারবার-ক্যানিং-বারুইপুর। প্রতিটি সেকশনে প্লাটফর্ম জুড়ে রয়েছে বেআইনি দোকান। স্টেশন ছেড়ে ট্রেন বেরোলেই দেখা যায়, লাইনের দু-ধারে ঝুপড়ি। রেলের বক্তব্য, এর ফলে যাত্রীরা স্টেশনে ট্রেন ধরতে এসে বিপাকে পড়েন। অস্থায়ী ঝুপড়ির শৌচাগার থেকে আসা জলে ক্ষয় হচ্ছে রেল লাইনের। এই অবস্থায় দোকান ও ঝুপড়ি হঠাতে অভিযান চালাবে রেল।

প্রতিদিন শিয়ালদহ ডিভিশনে দেরিতে ট্রেন চলা নিয়ে একাধিক অভিযোগ। রেলের অভিযোগ, প্লাটফর্ম ছেড়ে বেরোনোর সময় লোকাল ট্রেনের গতি ৬০ থেকে ৯০ কিমি প্রতি ঘন্টায় রাখা যায়। কিন্তু জবরদখলকারীরা যে ভাবে লাইনের ধারে ঝুপড়ি করেছেন তাতে গতি কমে দাঁড়িয়েছে ১৫ থেকে ২০ কিমি প্রতি ঘন্টায়। এমনকী, রেলের সুরক্ষা গাইডলাইন মেনে লাইনের ১০ ফুট দুরত্বের আগেই বসছে বাজার। ফলে কমছে গতি। একাধিকবার ট্রেনের হর্ন বাজানোয় বাড়ছে শব্দ দূষণ।

জবরদখল সমস্যা নিয়ে মঙ্গলবার বৈঠকে বসেছিলেন রেল আধিকারিকরা। বৈঠকে হাজির ছিলেন আর পি এফ কর্তারাও। বৈঠকেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে জবরদখলকারী হঠাতে টানা উচ্ছেদ অভিযান চালাবে। বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হয়েছে রাজ্যকেও।

First published: 10:47:22 AM Nov 22, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर