Home /News /purba-bardhaman /
Purba Bardhaman: হাসপাতালের আবর্জনা থেকে ছড়াতে পারে রোগ! উঠছে অভিযোগ

Purba Bardhaman: হাসপাতালের আবর্জনা থেকে ছড়াতে পারে রোগ! উঠছে অভিযোগ

বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল চত্বর নোংরা আবর্জনায় পরিপূর্ণ, নাজেহাল বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রোগী থেকে রোগীর পরিবারে লোকজন।

  • Share this:

    #পূর্ব বর্ধমান : বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল চত্বর নোংরা আবর্জনায় পরিপূর্ণ, নাজেহাল বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রোগী থেকে রোগীর পরিবারে লোকজন। রোগীর পরিজনদের অভিযোগ, এখানে বেশ কিছু জায়গায় জল জমে রয়েছে এবং সেই জলের মধ্যে রয়েছে নানান রকম নোংরা আবর্জনা সেখানে, যেমন মশার উপদ্রপ বেড়েছে তার পাশাপাশি দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে । হুঁশ নেই কর্তৃপক্ষদের, বহু দূর দূরান্ত থেকে এই হাসপাতালে আসেন রোগী ও রোগীর পরিবার পরিজনেরা। তাদের রাত কাটাতে হয়, রোগ সারাতে এসে নিজেরাই রোগী হয়ে পড়বেন এরকম নোংরা আবর্জনা থাকলে তাই রোগীর পরিবারের লোকজন দৃষ্টি আকর্ষণ করেন হাসপাতাল কতৃপক্ষদের কাছে । যাতে এ বিষয়ে একটু নজর দেওয়া হয়।

    এদিকে একটি বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষ থেকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ঠান্ডা পানীয় জলের মেশিন বসানো হয়েছিল এবং সেখান থেকে বহু মানুষ জল সংগ্রহ করত এখন সেই জায়গাটিও অকেজো হয়ে রয়েছে রোগীর পরিবারের লোকজন জল নিতে গিয়ে তাদের খালি বোতল নিয়ে ফিরে আসতে হচ্ছে । একটু জলের জন্য এক বিল্ডিং থেকে অন্য বিল্ডিং এ যেতে হচ্ছে ।

    আরও পড়ুনঃ বিক্ষোভকারীদের সামলাতে নতুন ব্যারিকেড আনল বর্ধমান জেলা পুলিশ 

    হাসপাতালে ভর্তি হওয়া এক রোগীর পরিবারের সদস্য প্রতিমা ধারা বলেন, \" একদিকে হাসপাতালে নোংরায় ভরা । অন্যদিকে জলের সমস্যা। চার দিন ধরে এই হাসপাতালে রোগী নিয়ে আছি। পুরনো বিল্ডিং থেকে নতুন বিল্ডিংএ যেতে হয় পানীয় জলের জন্য।\" অন্যদিকে আরেক রোগীর আত্মীয় তপন ঘোষ জানান, \" হাসপাতাল ।

    আরও পড়ুনঃ বিশ্ব জুনসিস দিবসে জলাতঙ্কের টিকা প্রদান বর্ধমানে

    কর্তৃপক্ষই শুধু হাসপাতাল চত্বর পরিষ্কার রাখার দায়িত্ব পালন করে না। আমাদেরও অর্থাৎ রোগীর পরিবার পরিজনদেরও এই বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। হাসপাতাল চত্বর পরিষ্কার রাখতে হবে ।\" যদিও এই বিষয়ে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সুপার জানান, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে । এবং খুব তাড়াতাড়ি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

    Malobika Biswas
    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Purba bardhaman

    পরবর্তী খবর