Home /News /purba-bardhaman /
East Bardhaman News: হুহু করছে বাড়ছে করোনা, এই জেলার পরিস্থিতি শুনলে আঁতকে উঠবেন

East Bardhaman News: হুহু করছে বাড়ছে করোনা, এই জেলার পরিস্থিতি শুনলে আঁতকে উঠবেন

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

East Bardhaman News: পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দৈনিক কোভিড রিপোর্ট শেষবার প্রকাশ করা হয়েছিল গত ১৭মার্চ।

  • Share this:

    #পূর্ব বর্ধমান: ফের বর্ধমান জেলা জুড়ে করোনা সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী। নড়েচড়ে বসল জেলা প্রশাসন। পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে দ্রুত টাস্ক ফোর্সের বৈঠক ডাকা হয়েছে। চলতি সপ্তাহেই এই টাস্ক ফোর্সের বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা। একইসঙ্গে জেলা পরিষদের পক্ষ থেকেও জনস্বাস্থ্য স্থায়ী সমিতির বৈঠক ডাকা হয়েছে মঙ্গলবার।পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দৈনিক কোভিড রিপোর্ট শেষবার প্রকাশ করা হয়েছিল গত ১৭মার্চ। তারপর থেকে আর কোনো রিপোর্ট সরকারিভাবে প্রকাশ হয় নি।

    কিন্তু দুই জুলাই থেকে ফের নতুন করে জেলায় করোনা সংক্রমণের কি অবস্থা, তার বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করা হচ্ছে। আর সেই রিপোর্ট দেখা গিয়েছে, জেলায় নতুন করে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন মোট ৩৯জন। তার মধ্যে জেলার ছটি পুরসভার মধ্যে চারটি পুরসভায় মোট ১২জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে। জেলার বাইরে থেকে এসে সংক্রমিত হয়েছেন সাত জন।এছাড়াও ২৩টি ব্লকের মধ্যে বেশ কয়েকটি ব্লক মিলিয়ে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ২০ জন। বর্ধমান পুরসভার ন'জন আক্রান্ত হয়েছে বলে খবর।

    আরও পড়ুন: দড়ি দিয়ে হাত-পা বাঁধা, ডোবার মধ্যে এ কী দৃশ্য! আঁতকে উঠল জলপাইগুড়ি

    জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব রায় বলেন, সাধারণ মানুষকে আরও বেশি করে সচেতন হতে হবে। নিয়মিত মাস্ক, স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে ।ভিড় এড়িয়ে চলতে হবে ।অন্যদিকে, জেলা পরিষদের জনস্বাস্থ্য কর্মাধ্যক্ষ বাগবুল ইসলাম জানান, করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষভাবে পর্যালোচনা করা হবে। সংক্রমণ ঠেকাতে কি ব্যবস্থা নেওয়া যায় তা নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা করা হবে ।

    আরও পড়ুন: এখনও সেই প্লাস্টিক ব্যবহার করছেন? নজর রাখছে পুরসভা, শুরু অভিযান!

    উল্লেখ্য , আরও উদ্বেগের কারণ হয়েছে খোদ জেলা সদর বর্ধমান শহর তথা বর্ধমান পুরসভাতেই দ্রুত বাড়তে শুরু করেছে করোনা সংক্রমণ। এখনও পর্যন্ত গোটা জেলায় প্রথম ডোজ ভ্যাকসিন নিয়েছেন ৮৯ শতাংশ । দ্বিতীয় ডোজের ভ্যাকসিন নিয়েছেন ৭৮ শতাংশ । বুস্টার বা তৃতীয় ডোজ নিয়েছেন ৪.৫ শতাংশ। ফলে দ্রুত ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ করছে প্রশাসন। --মালবিকা বিশ্বাস

    First published:

    Tags: East Bardhaman news, Kolkata News

    পরবর্তী খবর