• Home
  • »
  • News
  • »
  • off-beat
  • »
  • লক্ষ লক্ষ রেলযাত্রীদের জন্য সুখবর! দীর্ঘ ৮ মাস পর বাঁকুড়ার উপর দিয়ে ট্রেন চলাচল শুরু

লক্ষ লক্ষ রেলযাত্রীদের জন্য সুখবর! দীর্ঘ ৮ মাস পর বাঁকুড়ার উপর দিয়ে ট্রেন চলাচল শুরু

দেশ জুড়ে আনলক প্রক্রিয়া চালুর পর ধীরে ধীরে রাজ্যের অন্যান্য রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু হয়। কিন্তু প্রথম ও দ্বিতীয় দফায় সেই পুনরায় ট্রেন চালুর ক্ষেত্রে বঞ্চিতই ছিল বাঁকুড়া।

দেশ জুড়ে আনলক প্রক্রিয়া চালুর পর ধীরে ধীরে রাজ্যের অন্যান্য রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু হয়। কিন্তু প্রথম ও দ্বিতীয় দফায় সেই পুনরায় ট্রেন চালুর ক্ষেত্রে বঞ্চিতই ছিল বাঁকুড়া।

দেশ জুড়ে আনলক প্রক্রিয়া চালুর পর ধীরে ধীরে রাজ্যের অন্যান্য রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু হয়। কিন্তু প্রথম ও দ্বিতীয় দফায় সেই পুনরায় ট্রেন চালুর ক্ষেত্রে বঞ্চিতই ছিল বাঁকুড়া।

  • Share this:

    #বাঁকুড়া: করোনা সংক্রমনের আশঙ্কায় দীর্ঘ আট মাস বন্ধ থাকার পর আজ করোনা বিধি মেনে বাঁকুড়া স্টেশনের উপর দিয়ে চলাচল শুরু হল যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা। সোমবার সকালে নির্দিষ্ট সময়ে পুরুলিয়া এক্সপ্রেস বাঁকুড়া স্টেশনের উপর দিয়ে হাওড়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। আপাতত এই রুটে চার জোড়া ট্রেন চলাচল করবে। ধীরে ধীরে ট্রেনের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে বলে রেলের তরফে জানানো হয়েছে।

    চলতি বছর মার্চ মাসে করোনা সংক্রমণ শুরু হওয়ায় দেশ জুড়ে লকডাউন জারি হয়। সারা দেশের পাশাপাশি দক্ষিন-পূর্ব রেলপথেও যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। মাঝে অন্য রাজ্যে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিক ও সাধারণ মানুষকে রাজ্যে ফেরাতে স্পেশ্যাল ট্রেন চালানো হলেও সাধারন যাত্রীরা সেই ট্রেনে নিত্যদিনের যাতায়াত করতে পারেননি।

    দেশ জুড়ে আনলক প্রক্রিয়া চালুর পর ধীরে ধীরে রাজ্যের অন্যান্য রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু হয়। কিন্তু প্রথম ও দ্বিতীয় দফায় সেই পুনরায় ট্রেন চালুর ক্ষেত্রে বঞ্চিতই ছিল বাঁকুড়া। তৃতীয় দফায় আজ সোমবার বাঁকুড়া স্টেশনের উপর দিয়ে গড়াতে শুরু করে রেলের চাকা। দেরিতে হলেও বাঁকুড়ার উপর দিয়ে রেলের যাত্রী পরিসেবা চালু হওয়ায় স্বাভাবিক ভাবেই খুশি সাধারণ থেকে নিত্য যাত্রীরা। নিত্যযাত্রীদের দাবি, আপাতত ট্রেনগুলি স্পেশ্যাল ট্রেন হিসাবে চালু করছে রেল কর্তৃপক্ষ। এই অবস্থায় যে কোনও সময় ফের ট্রেনগুলির চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে। তাই তাঁদের দাবি ট্রেন সংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি স্পেশাল ট্রেন হিসাবে না চালিয়ে ট্রেনগুলিকে স্থায়ীভাবে চালানো হোক।

    Mritunjoy Das

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: