• Home
  • »
  • News
  • »
  • off-beat
  • »
  • Ram Navami 2021: আগামিকাল রাম নবমী, দিনের এই সময় শ্রী রামের পুজোয় ফল পাবেন সর্বাধিক

Ram Navami 2021: আগামিকাল রাম নবমী, দিনের এই সময় শ্রী রামের পুজোয় ফল পাবেন সর্বাধিক

Ram Navami 2021: দিনের কোন সময়ে মর্যাদা পুরুষোত্তমের আরাধনা সর্বাধিক মঙ্গলদায়ক?

Ram Navami 2021: দিনের কোন সময়ে মর্যাদা পুরুষোত্তমের আরাধনা সর্বাধিক মঙ্গলদায়ক?

শাস্ত্রে চৈত্র নবরাত্রির অন্তিম দিন, অর্থাৎ নবমী তিথিটিকে শ্রীরামের জন্মতিথি হিসাবে নির্দেশ করা হয়েছে।

  • Share this:

ইংরেজি ক্যালেন্ডার মতে ২১ এপ্রিল তারিখটি হিন্দুধর্মের একটি পুণ্যতিথি। সে যেমন শাক্তদের কাছে, তেমনই বৈষ্ণবদের কাছেও। কেন না, আগামীকাল চৈত্র নবরাত্রি তিথির শেষ দিন, সঙ্গত কারণেই শক্তিদেবীর ভক্তদের কাছে এই নবমী তিথি বিশেষ দ্যোতনাময়। তেমনই আবার এই তিথিটি বৈষ্ণবধর্মেরও অন্যতম বড় উৎসবের কারণ- এই তিথিতেই একদা অযোধ্যায় জন্মগ্রহণ করেছিলেন রঘুপতি রাঘব রাজা রাম!

শাস্ত্রে চৈত্র নবরাত্রির অন্তিম দিন, অর্থাৎ নবমী তিথিটিকে শ্রীরামের জন্মতিথি হিসাবে নির্দেশ করা হয়েছে। প্রতি মাসে পূর্ণিমা এবং অমাবস্যায় চাঁদের অবস্থানের উপরে ভিত্তি করে শুক্ল এবং কৃষ্ণ এই দুই পক্ষ নির্ধারণ করা হয়ে থাকে। নবদূর্বাদলশ্যাম রাম জন্মগ্রহণ করেছিলেন শুক্লপক্ষে।

রামায়ণ আমাদের জানায়, সূর্যবংশীয় ইক্ষ্বাকুকুলের রাজা দশরথের মনে সুখ ছিল না। তাঁর তিন মহিষী- কৌশল্যা, কৈকেয়ী এবং সুমিত্রা। কিন্তু কেউই তাঁকে কোনও সন্তান দিতে পারেননি। এর পিছনে দায়ী ছিল রাজার কৃতকর্ম। তিনি ছিলেন অসাধারণ ধনুর্ধর, চোখ বুজে শব্দবেধী বাণ চালাতে তাঁর জুড়ি ছিল না। একদা বর্ষার রাতে শিকারের বাসনা প্রবল হয়ে ওঠে দশরথের, তিনি তীর-ধনুক হাতে বিচরণ করতে থাকেন সরযূ নদীর তীরে। সেই যুবাবয়সে, ঘোর অন্ধকার বর্ষার রাতে একটি শব্দ শুনে তাঁর মনে হয় যে কোনও পশু জল পান করছে। রাজা শব্দবেধী বাঁ ছুড়ে আর্তনাদে বুঝতে পারেন যে তিনি নরহত্যা করেছেন! সেই শিকার ছিলেন অন্ধ পিতামাতার একমাত্র অবলম্বন শ্রবণমুনি। পুত্রের মৃত্যুতে শোকগ্রস্ত ঋষি শাপ দেন দশরথকে- তাঁরও পুত্রসুখ লাভ হবে না!

দশরথকে এই অপুত্রক দশা থেকে উদ্ধার করেন ঋষ্যশৃঙ্গ ঋষি। তিনি পুত্রেষ্টি যজ্ঞ করলে এক দেবপুরুষ অগ্নি থেকে আবির্ভূত হয়ে দিব্য চরুপাত্র সমর্পণ করেন রাজাকে। রাজা তা দুই ভাগে বন্টন করেন কৌশল্যা এবং কৈকেয়ীর মধ্যে। এই দুই মহিষী নিজেদের ভাগ থেকে আবার অর্ধেকটা দেন সুমিত্রাকে। কালক্রমে চৈত্র মাসের শুক্লপক্ষে মধ্যাহ্নে কৌশল্যার গর্ভে রাম, কৈকেয়ীর গর্ভে ভরত, সুমিত্রার গর্ভে লক্ষ্মণ এবং শত্রুঘ্ন রূপে বিষ্ণুর চার অংশ জন্মগ্রহণ করেন। এর মধ্যে পূর্ণাবতার এবং জ্যেষ্ঠ হওয়ার কারণে রামের নামে তিথিটি রামনবমী বলে পরিচিত হয়েছে।

রামের জন্ম হয়েছিল দুপুর বারোটার পরে। তাই যাঁরা উপবাস পালন করে এই দিন মর্যাদা পুরুষোত্তমের আরাধনা করবে, তাঁদের তা করতে হবে ২১ এপ্রিল সকাল ১১টা ০২ মিনিট থেকে দুপুর ১টা ৩৮ মিনিটের মধ্যে- পূজা দেওয়ার এটিই প্রকৃষ্ট সময়।

Published by:Simli Raha
First published: