সবার চৈতন্য হোক, শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংস দেবের শুভ জন্মদিনে পাথেয় তাঁর কিছু সেরা উপদেশ

সবার চৈতন্য হোক, শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংস দেবের শুভ জন্মদিনে পাথেয় তাঁর কিছু সেরা উপদেশ
শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংস দেবের শুভ জন্মদিনে পাথেয় তাঁর কিছু সেরা উপদেশ

শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংস দেবের শুভ জন্মদিনে পাথেয় তাঁর কিছু সেরা উপদেশ

  • Share this:

#কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গের কামারপুকুরে এক দরিদ্র ও রক্ষণশীল ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন শ্রীরামকৃষ্ণ দেব (Sri Ramakrishna Paramahamsa)। রানি রাসমণি (Rani Rashmani) প্রতিষ্ঠিত দক্ষিণেশ্বরের কালী মন্দিরে তিনি পুরোহিত হিসেবে কাজ করতেন।  কালীসাধক হিসেবে তাঁর নাম দিগ্বিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। ১৮৩৬ সালে আজকের দিনে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তিনি সর্ব ধর্মকে সম্মান জানাতেন এবং অত্যন্ত সহজ ভাষায়  গভীর কথা প্রাঞ্জল করে বোঝাতেন।

রামকৃষ্ণদেবের বাবা ছিলেন ক্ষুদিরাম চট্টোপাধ্যায় (Khudiram Chattopadhyay) ও মায়ের নাম ছিল চন্দ্রমণি দেবী (Chandramani Devi)। শোনা যায় চতুর্থ সন্তান রামকৃষ্ণ বা গদাধর জন্মানোর আগে তিনি কিছু দিব্য স্বপ্ন দেখেছিলেন। কিন্তু ক্ষুদিরাম ছেলের জন্মের আগে গয়ায় গিয়ে বিষ্ণুকে দর্শন করেন। আর তাই তিনি ছেলের নাম রাখেন গদাধর।

আজ রামকৃষ্ণদেবের ১৮৫ তম জন্মদিন। সেই পুণ্যলগ্নে তাঁর কিছু উপদেরা আরও একবার নতুন করে দেখে নেওয়া যাক। সাড়া বিশ্বে অসংখ্য মানুষকে অনুপ্রাণিত করে নতুন পথ দেখিয়েছে এই বাণী।


১) মানুষের জীবনের উদ্দেশ্য হল ভালোবাসা।

২) অহঙ্কার না থাকলে জীবনে কোনও সমস্যাও থাকে না।

৩) সব ধর্মই সত্য। যে কোনও ধর্মের পথ ধরেই ভগবানের কাছে পৌঁছনো যায়। নদী বিভিন্ন পথ ধরে প্রবাহিত হয় কিন্তু সাগরে গিয়েই মেশে। এগুলো সবই এক।

৪) চিনি আর বালি একসঙ্গে মিশিয়ে পিঁপড়ের কাছে রাখো। পিঁপড়ে ঠিক চিনি বেছে নেবে। একজন পবিত্র ও ধর্মপ্রাণ মানুষও খারাপ থেকে ভালো বেছে নেয়।

৫) ঈশ্বরের চরণে নিজেকে সমর্পিত না করলে মানুষের জীবনে আর কিছুই থাকে না।

৬) যতদিন বাঁচি, ততদিনই শিখি।

৭) সত্যি বলতে ভয় পেলে চলবে না। সত্যের হাত ধরেই ঈশ্বর দর্শন হয়।

৮) সূর্য সারা পৃথিবীকে আলো আর উত্তাপ দেয়। কিন্তু ঘন কালো মেঘ যখন সূর্যকে ঢেকে দেয়, তখন সে আর আলো দিতে পারে না। সেরকমই আত্মঅহঙ্কার যখন মনের মধ্যে বাসা বাঁধে, তখন ঈশ্বরও আর দেখা দেন না।

৯) যখন তুমি ইশ্বরের কৃপা দৃষ্টি পাবে, সেই দৃষ্টি দিয়ে সবাইকে সমান মনে হবে। তখন ভালো-মন্দ আর উঁচ- নিচুর তফাৎ মুছে যাবে।

১০) ঈশ্বরের কাছে তুমি ভক্তি চাইবে, আর এটাও চেয়ে নিও যেন কারও মধ্যে খুঁত না খুঁজে পাও।

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

লেটেস্ট খবর