• Home
  • »
  • News
  • »
  • off-beat
  • »
  • Winter Bathing Tips: আসছে শীতকাল, এবার কি স্নানে ভয়? মেনে চলুন এই ক'টা টিপস

Winter Bathing Tips: আসছে শীতকাল, এবার কি স্নানে ভয়? মেনে চলুন এই ক'টা টিপস

Winter Bath tips: শীতকালে স্নানের কিছু প্রয়োজনীয় পরামর্শ মেনে চলা আবশ্যিক।

Winter Bath tips: শীতকালে স্নানের কিছু প্রয়োজনীয় পরামর্শ মেনে চলা আবশ্যিক।

Winter Bath tips: শীতকালে স্নানের কিছু প্রয়োজনীয় পরামর্শ মেনে চলা আবশ্যিক।

  • Share this:

#কলকাতা: সারাদিনের কাজের জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে সকালের স্নান আমাদের সতেজ করে তোলে। পরিচ্ছন্নতার ছাড়াও স্নানের অনেক স্বাস্থ্যের উপকারিতাও রয়েছে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, প্রতিদিন গরম জলে স্নান করলে স্বাস্থ্য ভালো থাকে এবং চাপমুক্ত থাকার সম্ভাবনা বেশি থাকে, বেশি বিশ্রাম হয়, ভালো ঘুমও হয়।

গরম জলে স্নান ওজন কমাতেও সাহায্য করে। কিন্তু স্নানের অনেক উপকারিতা থাকা সত্ত্বেও অনেকেই শীতকালে স্নানের থেকে দশ হাত দূরে থাকে। যা এক দিকে যেমন অস্বাস্থ্যকর আবার শরীরের জন্য ক্ষতিকরও। তাই শীতকালে স্নানের কিছু প্রয়োজনীয় পরামর্শ মেনে চলা আবশ্যিক।

১. প্রতি দিন স্নান

খুব ঠাণ্ডা বা অলসতা লাগলেও শীতকালে প্রতি দিন গরম জল দিয়ে স্নান করা উচিত। কারণ এটি শরীরে হাইপারথার্মিক প্রভাব ফেলে। ফলে শরীরের তাপমাত্রা বাড়ে। আর শীতকালে এর চেয়ে বেশি কী বা আমাদের চাই! গবেষণায় দেখা গিয়েছে, এই হাইপারথার্মিক প্রভাব শীতকালে হার্টের স্বাস্থ্যের জন্যও বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ কারণ ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় হৃদস্পন্দনের গতি ধীরে হয়ে যায়। তবে শীতকালে অতিরিক্ত সময় ধরে স্নানের কোনও প্রয়োজন নেই৷ ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় খুব বেশি ১০ মিনিট স্নান করলেই যথেষ্ট।।

আরও পড়ুন- বাজার চলতি প্রসাধনী নয়, ত্বকের জেল্লা ফেরাতে বাড়িতে বানিয়ে ফেলুন এই ফেসপ্যাকগুলি

২. সঠিক তাপমাত্রা

গরম জল এবং ঈষৎ উষ্ণ গরম জলের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। আমাদের ত্বকের স্বাস্থ্যকর জীবাণুতে প্রাকৃতিক মাইক্রোবায়োটা এবং পিএইচ স্তর রয়েছে। খুব গরম জলে স্নান করলে এই স্বাস্থ্যকর জীবাণুগুলির ক্ষতি হয় এবং ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। একই সঙ্গে ত্বকে চুলকানি, র‍্যাশও হতে পারে। তাই সামান্য গরম অথবা ঈষৎ উষ্ণ গরম জলেই স্নান করা উচিত।

৩. ধীরে ধীরে স্নান

শীতকালে আমাদের ত্বক এমনিতেই শুষ্ক এবং সংবেদনশীল থাকে তাই স্নানের সময় লুফা দিয়ে বেশি জোরে ঘষলে ত্বকের ক্ষতি হতে পারে৷ এতে ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়ারও সম্ভাবনা থাকে। শীতকালে স্নানের সময় বেশি যত্নশীল হওয়া প্রয়োজন।

৪.ময়েশ্চারাইজ করা

শীতকালে ময়েশ্চারাইজারের থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ আর কিছু নেই। তাই নিয়মিত ভালো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা উচিত। অনেকেই শীতে গ্লিসারিন ব্যবহার করেন যা ত্বকের ময়েশ্চারাইজার বজায় রাখে। চাইলে ঘি, অলিভ ওয়েল, নারকেল তেল ইত্যাদির মতো ভেষজ অথবা প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার ত্বকে লাগানো যায়।

৫. পরিচ্ছন্মতা

সংক্রমণের সঙ্গে লড়াই করার জন্য পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখা খুবই জরুরি। বাথরুম বিশেষ করে শাওয়ারহেড, ট্যাপ ও ড্রেন নিয়মিত পরিষ্কার করা উচিত। সাবান কেস এবং বাথরুমের তাকও পরিষ্কার রাখা উচিত। সব মিলিয়ে নিয়মিত ব্যবহৃত সব কিছুই যেমন রোজকার ব্যবহৃত লুফা এবং তোয়ালেও নিয়মিত পরিষ্কার করে শুকিয়ে নেওয়া জরুরি।

First published: