• Home
  • »
  • News
  • »
  • off-beat
  • »
  • দীপাবলির সন্ধ্যায় অলক্ষ্মী বিদায় করা হয় ! এই অলক্ষ্মী আদতে কে ?

দীপাবলির সন্ধ্যায় অলক্ষ্মী বিদায় করা হয় ! এই অলক্ষ্মী আদতে কে ?

representative image

representative image

  • Share this:

    #কলকাতা: দীপাবলির সন্ধ্যায় ঘর থেকে অলক্ষ্মী বিদায় করা হয়! শাস্ত্রের এই নিয়ম যুগ যুগ ধরে প্রচলিত! বাড়ির সদস্যরা অলক্ষ্মীর মূর্তিকে রাস্তায় পাটকাঠি জ্বালিয়ে "অলক্ষ্মী বিদায় হ, ঘরের লক্ষ্মী ঘরে আয়" ছড়া গাইতে গাইতে ঘরে ফেরে।

    আসলে লক্ষ্মী দেবীর বিপরীত এই অলক্ষ্মী বা পাপীলক্ষ্মী। মূর্তিটি গোবরের, তৈরি করা হয় বাঁহাত দিয়ে। চোখের জায়গায় দু’টি কড়ি, সর্বাঙ্গে ছেঁড়া চুল। বলা হয়, অলক্ষ্মী অমঙ্গল ও অশুভের প্রতীক, তাই অলক্ষ্মী মূর্তিকে ঘরের ভিতর আনা হয় না, রাখা হয় দরজার এক কোণে! পুরোহিত বাঁ হাত দিয়ে কিছু ফুল মূর্তির উপর ফেলে দেন।

    প্রচলিত মত, মা লক্ষ্মীর জ্যেষ্ঠা ভগিনী অলক্ষ্মী । পদ্মপুরাণ মতে, দেবতা ও অসুর মিলে যখন ক্ষীরোদ সাগর মন্থন করছিলেন, সেই সময় অলক্ষ্মীর আবির্ভাব হয়। পরণে তাঁর রক্তমালা, রক্তকমল, লোহার অলঙ্কার! কৃষ্ণবর্ণা, হাতে ঝাঁটা ! অলক্ষ্মীর আবির্ভাবে খোদ দেবতা ও অসুরেরাও ভীত, হতচকিত হয়ে পড়েন। তাঁকে স্পর্শ, গ্রহণ ও বিয়ে করতে রাজি হন না কেউই !

    তখন বিষ্ণুর অনুরোধে উদ্দালক মুনি অলক্ষ্মীকে বিয়ে করেন। কিন্তু বিয়ের পর অলক্ষী উদ্দালক মুনির সঙ্গে জীবন জাপন করতে না চাইলে মুনি তাঁকে ছেড়ে চলে যান। তিনি আর কোনও দিনও অলক্ষ্মীর কাছে ফিরে আসেননি। সেদিন থেকে অলক্ষ্মীরও কোনও গৃহস্থের ঘরে ঠাঁই হয়নি।

    আরও পড়ুন-শনিবার এই জিনিসগুলো কিনলে সর্বনাশ ! ভিখিরি হওয়া কেউ আটকাতে পারবে না

    First published: