চাঁদের গায়েই অন্য ‘চাঁদ’! তিন বছর ধরে দেখা যাচ্ছে তাকে

চাঁদের গায়েই অন্য ‘চাঁদ’! তিন বছর ধরে দেখা যাচ্ছে তাকে
জেমিনি অবজারভেটরিতে ধরা পড়েছে এই নতুন চাঁদের ছবি৷ ছবিঃ Wikipedia

শুক্রবার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা মাইনর প্ল্যানেট সেন্টার এমনই চমকপ্রদ তথ্য দিল৷ সংস্থাটি জানাচ্ছে, গত তিন বছর ধরে চাঁদের চারপাশে ঘুরতে দেখা যাচ্ছে একটি গ্রহাণুকে৷ তবে চেহারায় গ্রহাণুপুঞ্জটি খুবই শীর্ণ৷ আয়ুষ্কালও সীমিত৷

  • Share this:

চাঁদের কক্ষেই ঘুরছে চাঁদের দোসর৷ চাঁদের মতো সুন্দর নয় তার চেহারা৷ আয়তনেও সে খুবই ছোট৷ তবে তিন বছর ধরে তার উপস্থিতি স্পষ্ট৷

হ্যাঁ, শুক্রবার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা মাইনর প্ল্যানেট সেন্টার এমনই চমকপ্রদ তথ্য দিল৷ সংস্থাটি জানাচ্ছে, গত তিন বছর ধরে চাঁদের চারপাশে ঘুরতে দেখা যাচ্ছে একটি গ্রহাণুকে৷ তবে চেহারায় গ্রহাণুপুঞ্জটি খুবই শীর্ণ৷ আয়ুষ্কালও সীমিত৷

মার্কিন জ্যোতির্বিজ্ঞানী থিওডোর প্রুইন অ্যারিজোনার মাউন্ট লেমন অঞ্চল থেকে প্রথম এই গ্রহাণুপুঞ্জটিকে আবিষ্কার করেন চলতি মাসের ১৫ তারিখ৷ বারংবার পর্যবেক্ষণের পর গ্রহাণুপুঞ্জটির দৈর্ঘ্য-প্রস্থ সম্পর্কেও একটি ধারণা তৈরি হয়৷ সংস্থার মতে গ্রহাণুপুঞ্জটির ব্যস ১৬মিটার৷ অবশেষে ২৫ ফেব্রুয়ারি এই গ্রহাণুপুঞ্জটি সম্পর্কে ঘোষণা করে মাইনর প্ল্যানেট সেন্টার৷ গ্রহাণুটির নাম দেওয়া হয় ২০২০সিডি৩৷

কাছাকাছি অবস্থান করা এক গ্রহাণুপুঞ্জ থেকেই এই গ্রহাণুটি চাঁদের কক্ষে এসেছে মত জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের৷ স্বাভাবিক ভাবেই অনুসন্ধিৎসুদের প্রশ্ন, কোনও সংঘর্ষের সম্ভাবনা নেই তো? বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, আমাদের চাঁদের থেকে নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করছে এই গ্রহাণু৷ এবং তার আকৃতি এতই ছোট, যে কোনও বিপদের সম্ভাবনা নেই৷

মহাশূন্যে বিলীন হওয়ার আগে অন্তত একবার পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করবে এই নতুন চাঁদ৷

First published: February 28, 2020, 2:56 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर