সম্পর্কে যাওয়ার আগে মাথায় রাখুন- এই ৪ রাশির জাতক-জাতিকারা অশান্তি একেবারে পছন্দ করেন না!

কেন তাঁরা সম্পর্কে অশান্তিকে প্রশ্রয় দিতে পারেন না, দেখে নেওয়া যাক জন্মদিন মিলিয়ে!

কেন তাঁরা সম্পর্কে অশান্তিকে প্রশ্রয় দিতে পারেন না, দেখে নেওয়া যাক জন্মদিন মিলিয়ে!

  • Share this:

#কলকাতা: সম্পর্ক হয়েছে ভালোবাসার অথচ সেখানে অশান্তি নেই, এমনটা কি হতে পারে? সবাই এই প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে একবার ঝালিয়ে নেবেন নিজেদের সম্পর্কের খুচরো বা বিশাল ঝামেলার কথা। সম্পর্কে এটা লেগেই থাকে, সে আমরা চাই বা না চাই! আসলে মনের মানুষের কাছ থেকে আমাদের দাবিদাওয়া থাকে অনেক বেশি আর সে কারণেই কথায় কথায় অশান্তির পরিবেশ তৈরি হতে পারে।

তবে কেউ সেটা খুব কায়দা করে সামাল দিতে জানেন, কেউ বা আবার গলা সপ্তমে তুলে বড়সড় ঝামেলা বাধিয়ে বসেন! কে কেমন ভাবে সঙ্গী/সঙ্গিনীর ব্যবহার মনঃপূত না হলে প্রতিক্রিয়া জানাবেন, সেটা অনেকটাই নির্ভর করে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির স্বভাবের উপরে। ঠিক তেমনই আবার যাঁরা এই ঝামেলার সঙ্গে দিব্যি মানিয়ে নিয়ে এবং গুছিয়ে নিয়ে দিনের পর দিন সম্পর্ক বজায় রাখতে পারেন, সেটাও তাঁদের স্বভাবগত বৈশিষ্ট্য। এবার এই স্বভাবের কথা তুললেই মুদ্রার অপর পিঠে আলো ফেলতে হয়, এমন মানুষও আছেন যাঁদের অশান্তি একেবারে পোষায় না রাশিচক্রের বৈশিষ্ট্য অনুসারেই!

কেন তাঁরা সম্পর্কে অশান্তিকে প্রশ্রয় দিতে পারেন না, দেখে নেওয়া যাক জন্মদিন মিলিয়ে!

বৃষ (Taurus): এপ্রিল ২০ থেকে মে ২০। এই রাশির জাতক-জাতিকারা সাধারণত খুব সরাসরি কথা বলতে ভালোবাসেন, একটু একগুঁয়ে স্বভাবেরও হয়ে থাকেন। তা বলে তাঁরা যে সঙ্গী/সঙ্গিনীর আবেগের মূল্য দেন না, এমনটা কিন্তু নয়। তাই অশান্তির শুরুতেই নিজেদের অবস্থান তাঁরা যুক্তির মাধ্যমে স্পষ্ট করে দেন। এতে অশান্তি এড়ানো গেলে ভালো, না হলে এক সময়ে সম্পর্ক ভাঙে।

কন্যা (Virgo): এই রাশির জাতক-জাতিকারা সাধারণত যা স্থির করেন, তাতেই অনড় থাকেন। নিজেদের লক্ষ্যমাত্রা থেকে এঁরা সহজে বিচ্যুত হন না। ফলে সম্পর্কে অশান্তি বাধার উপক্রম হলে এঁরা একবার সেটা মেটানোর চেষ্টা করেন। কাজ না হলে আর ফিরেও তাকান না!

তুলা (Libra): সেপ্টেম্বর ২৩ থেকে অক্টোবর ২২। এই রাশির জাতক-জাতিকারা সাধারণত খুবই শান্ত প্রকৃতির হয়ে থাকেন, রাশিচক্রের প্রতীকের মতোই এঁরা সর্বদা ভারসাম্য রক্ষায় বিশ্বাসী। এঁদের মনে হয় যে যুক্তি দিয়ে সব সমস্যার সমাধান সম্ভব- সেটা না হলে তখন এঁরা পিছিয়ে আসেন, তবে অশান্তি মনে নেন না কোনও মতেই!

ধনু (Sagittarius): এই রাশির জাতক-জাতিকারা সাধারণত নিজেদের দোষ স্বীকার করতে পিছ-পা হন না। এটা কিন্তু তাঁরা অশান্তি এড়ানোর জন্যই করে থাকেন, তাছাড়া স্বভাবের দিক থেকেও এঁরা সোজাসাপটা হন। তাই কোনও অশান্তির মধ্যে থাকতে পছন্দ করেন না।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: