corona virus btn
corona virus btn
Loading

'মানুষের সঙ্গে মানুষের পাশে' শিলিগুড়ির যুবভারতী ক্লাব, বিপর্যয়ে বাড়ুিয়ে দিল সাহায্যের হাত

'মানুষের সঙ্গে মানুষের পাশে' শিলিগুড়ির যুবভারতী ক্লাব, বিপর্যয়ে বাড়ুিয়ে দিল সাহায্যের হাত

লকডাউনে কমিউনিটি কিচেনের পাশাপাশি বিনামূল্যে চিকিৎসা পরিষেবাও দিয়ে চলেছে 'যুবভারতী ক্লাব'

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: আজই শেষ হচ্ছে চতুর্থ দফার লকডাউন। দেশজুড়ে কনটেইনমেন্ট জোনগুলিতে জুন মাস পর্যন্ত চলবে লকডাউন। কাল থেকে শুরু হচ্ছে আনলক ১। কিন্তু রাজ্যে বেড়েছে লকডাউনের মেয়াদ। আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত রাজ্যে চলবে লকডাউন। তবে ৮ মে থেকে ধাপে ধাপে কিছু পরিষেবা খুলে যাবে। তবুও টানা ২ মাসের বেশী সময় ধরে লকডাউন চলায় অনেকেই বিপাকে। কর্মহীন হয়ে পড়েছে অনেকেই।

প্রথম দিকে বন্ধ ছিল চা বাগানও। তৃতীয় দফায় ২৫ শতাংশ শ্রমিক দিয়ে শুরু হয় পাতা তোলার কাজ। পরবর্তীতে তা বাড়িয়ে ৫০ শতাংশ শ্রমিক করা হয়। যার ফলে সংকটে পড়ে উত্তরের চা শ্রমিকেরা। বিকল্প আয় যে ওদের নেই। যদিও ১লা জুন থেকে প্রতিটি চা বাগানই ১০০ শতাংশ শ্রমিক দিয়ে পাতা তোলাতে পারবে বলে রাজ্য সরকার নির্দেশিকা জারি করেছে। এতে খুশীর আবহ চা শ্রমিক মহল্লায়।

আজ তরাইয়ের এমনই এক চা বাগানে পৌঁছয় শিলিগুড়ির "যুবভারতী ক্লাব।" বছরভর নানা সমাজসেবায় যুক্ত এই ক্লাবের সদস্যরা। লকডাউনের প্রথম দিন থেকেই মারণ করোনার বিরুদ্ধে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পথে নামে ক্লাবের সদস্যরা। শুরু করে কমিউনিটি কিচেন। আজ ওরা যায় তরাইয়ের পাহাড়গুমিয়া চা বাগানের শ্রমিক লাইনে। প্রায় এক হাজার শ্রমিক ও তাদের পরিবারের মুখে তুলে দেয় রান্না করা খাবার। কী ছিল মেনুতে ? ভাত, সোয়াবিনের তরকারী এবং ডিমের কারি। পারস্পরিক দূরত্ব বজায় রেখে সকলকে দাঁড় করানো হয়। তারপর পেটপুরে শ্রমিকদের পাতে তুলে দেওয়া হয় খাবার।

প্রতিদিনই এক হাজার অসহায়, দুঃস্থদের হাতে তুলে দিয়েছে খাবার। রান্না করা খাবারের পাশাপাশি খাদ্য সামগ্রীও তুলে দিয়েছে। শুধু তাই নয়, যখন যার যা প্রয়োজন হয়েছে, ফোন পেলেই তা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট ঠিকানায়। পাশাপাশি দুঃস্থদের মেডিকেল পরিষেবাও দিয়েছে। এম্বুলেন্স থেকে চিকিৎসক, প্যাথলজিক্যাল ল্যাব, ওষুধ সবরকম পরিষেবাই দিয়েছে। ক্লাবের স্লোগানই যে "মানুষের সাথে মানুষের পাশে"। তাই সর্বাদাই পাশে থাকতে প্রত্যয়ী " যুবভারতীর" সদস্যরা।

Partha Pratim Sarkar

Published by: Ananya Chakraborty
First published: May 31, 2020, 5:15 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर