মাছ তুমি কোথাকার? মরা মাছ নিয়ে চলছে চাপানউতোর

মাছ তুমি কোথাকার? মরা মাছ নিয়ে চলছে চাপানউতোর
মরা মাছ

মহানন্দার দূষণেই হাজার নদীয়ালি মাছের মৃত্যু পরিবেশপ্রেমী। মহানন্দার মাছ নয় মেয়র

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: মাছ তুমি কোথাকার? মহানন্দায় মরা মাছ নিয়ে এখন শিলিগুড়িতে শুরু হয়েছে চাপান উতোর। পরিবেশপ্রেমীদের দাবী, মাত্রাতিরিক্ত দূষণের জেরেই মহানন্দায় হাজার নদীয়ালি মাছের মৃত্যু হয়েছে। যদিও এই সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন শিলিগুড়ির মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। মহানন্দায় এত প্রজাতির মাছ হয় না। অন্য কোথাও থেকে মরা মাছ মহানন্দায় ফেলা হয়েছে। দাবী মেয়রের। এনিয়ে চলছে একে অপরকে দোষারোপের পালা।

মেয়রের যুক্তি মানতে নারাজ পরিবেশপ্রেমীরা। এর আগেও মরা মাছ ভেসে উঠেছিল মহানন্দায়। ফের গতকাল ভেসে ওঠায় শহরজুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। মেয়র দাবী করেছেন, মৎস দপ্তর তদন্ত করলেই তা পরিস্কার হয়ে উঠবে। সব দায় পুরসভা নেবে কেন? আর এই ইস্যুতেই মেয়র দায় এড়াচ্ছেন বলে পালটা দাবী পরিবেশপ্রেমী অনিমেষ বসু, দীপজ্যোতি চক্রবর্তীদের। শহরের একাধিক হাই ড্রেন মিশেছে মহানন্দায়। কোনোরকম কীটনাশক ব্যবহার করা হয়ে থাকতে পারে। তার জেরেই হাজার নদীয়ালি মাছের মৃত্যু হয়েছে।

রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের সমীক্ষাতেই মহানন্দা উত্তরবঙ্গের দূষিত নদীগুলোর মধ্যে পয়লা নম্বরে। দূষণ রোধে দায় না এড়িয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে। এই দাবীই তুলেছেন তাঁরা। শুধু মাছই নয়, দূষণের জেরে বহু জলজ প্রাণী, উদ্ভিদেরও মৃত্যু হচ্ছে মহানন্দায়। দিন দিন দূষণ বেড়েই চলেছে। কার্যত শহরের যাবতীয় নোংরা-আবর্জনা ফেলার ডাস্টবিনে পরিণত হয়েছে এই নদী। যেখানে শহরের বুক চিড়ে যাওয়া মহানন্দা হতে পারতো শিলিগুড়ির আশির্বাদ। উল্টে এখন অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছে। দ্রুত প্রশাসনিক পদক্ষেপ না নেওয়া হলে আগামীদিনে শহর শিলিগুড়ির দূষণ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে। মৎস দপ্তরের এক আধিকারীকও জানিয়েছেন, মহানন্দার দূষণ অজানা নয়। এর আগেও প্রচুর মরা মাছ ভেসে উঠেছে এই নদীতে। তাহলে ভেসে ওঠা মরা মাছ কোথাকার? এনিয়েই চলছে শহরজুড়ে আলোচনা। দূষণ নিয়ন্ত্রণে এসজেডিএ'র বহু পুরনো মহানন্দা আকশন প্লান কি আদৌ বাস্তবায়িত হবে? প্রশ্ন তুলছেন পরিবেশপ্রেমীরা।

First published: March 4, 2020, 4:34 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर