Duare Ration in Malda: দুয়ারে রেশন প্রকল্পের মহড়া শুরু মালদহে, বাড়ির কাছে রেশন পেয়ে খুশি গ্রাহকেরা

শুক্রবার মালদহের হবিবপুর ব্লকের বাজারপাড়ায় রাজকুমার সাহা নামে জনৈক রেশন ডিলারের মাধ্যমে এলাকায় পৌঁছে গিয়ে সরাসরি রেশন সামগ্রী তুলে দেওয়ার কাজ হয়।

শুক্রবার মালদহের হবিবপুর ব্লকের বাজারপাড়ায় রাজকুমার সাহা নামে জনৈক রেশন ডিলারের মাধ্যমে এলাকায় পৌঁছে গিয়ে সরাসরি রেশন সামগ্রী তুলে দেওয়ার কাজ হয়।

  • Share this:

সেবক দেবশর্মা, মালদহ:- মালদহেও শুরু হল মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষিত প্রকল্প ‘দুয়ারে রেশন’-এর মহড়া। শুক্রবার মালদহের হবিবপুর ব্লকের বাজারপাড়ায় রাজকুমার সাহা নামে জনৈক রেশন ডিলারের মাধ্যমে এলাকায় পৌঁছে গিয়ে সরাসরি রেশন সামগ্রী তুলে দেওয়ার কাজ হয়।

করোনা পরিস্থিতিতে শারীরিক দূরত্ব বিধি মেনে রীতিমতো গোল্লাছুট এঁকে দিয়ে তার মধ্যে দাঁড় করানো হয় কয়েকজন রেশন গ্রাহককে। এরপর ব্লক ও মহাকুমা খাদ্য সরবরাহ আধিকারিকদের উপস্থিতিতে একে একে গ্রাহকদের রেশন সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। নতুন এই ব্যবস্থায় দূরবর্তী রেশন ডিলারের দোকানে গিয়ে আর রেশন সামগ্রী নিতে হবে না গ্রাহকদের।

পরিবর্তে বিভিন্ন এলাকায় এলাকায় পৌঁছে গিয়ে বাড়ির কাছেই রেশন সামগ্রী বিলির বিকল্প ব্যবস্থা হবে। করোনাকাল হওয়ায় রেশন বিলির পাশাপাশি মাস্ক ও স্যানিটাইজার ব্যবহারের ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে। সরকারি নতুন এই ব্যবস্থা ব্যবস্থায় বাড়ির কাছে রেশন পেয়ে খুশি গ্রাহকরা। আবার মানুষের মধ্যে উৎসাহ লক্ষ্য করে খাদ্য সরবরাহ দফতরের আধিকারিকরাও দুয়ারে রেশন প্রকল্পের সাফল্য নিয়ে আশা প্রকাশ করেছেন। এদিন  মালদহের হবিবপুরে শতাধিক গ্রাহকের হাতে রেশন সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। গত বিধানসভা নির্বাচনের আগেই মানুষের হয়রানি ঠেকাতে "দুয়ারে রেশন"- প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এতদিন গ্রামাঞ্চলে অনেককেই বাড়ি থেকে দুই তিন কিলোমিটার পর্যন্ত দূরত্বে গিয়ে রেশনের দোকানে দীর্ঘক্ষণ লাইন দিয়ে রেশন তুলতে হতো। নানা অসুবিধেয় অনেকেই সরকারি বরাদ্দ রেশনের সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছিলেন। অনেকক্ষেত্রে রেশন ডিলারদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগও উঠছিল। আবার বরাদ্দ মালপত্র ঠিকমত না পেলে রেশন গ্রাহকদের পক্ষেও সব সময় ডিলারের দোকানে গিয়ে প্রতিবাদ করা সম্ভব হচ্ছিল না। নতুন ব্যবস্থায় গ্রাহকদের হয়রানি কমবে, বাড়ির কাছে রেশন মিলবে, একইসঙ্গে রেশন ব্যবস্থায় স্বচ্ছতা আরও বেশি করে প্রতিষ্ঠিত হবে বলে মনে করছেন প্রশাসনিক আধিকারিকেরা।

এদিন হবিবপুরের বুলবুলচন্ডীতে দুয়ারে রেশন প্রকল্পের মহড়ায় শামিল হয়ে রেশন নেন গৃহবধূর সাবিত্রী রায়, রেশন গ্রাহক রাজীব সরকার প্রমুখ। দুয়ারে রেশন ব্যবস্থা চালু হলে সকলেই উপকৃত হবেন বলে দাবি করেছেন গ্রাহকেরা।মালদহের মহকুমা খাদ্য নিয়ামক আজিজুল শেখ এদিন বলেন, দুয়ারে রেশন প্রকল্পের মহড়া সফল হয়েছে। প্রচুর মানুষ মহড়ায় সামিল হয়ে রেশন তুলেছেন। আশা করা হচ্ছে, সরকারের এই নতুন পদক্ষেপ ফলপ্রসূ হবে।

 সেবক দেব শর্মা

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: