ভোটের তিন মাস আগেই দেওয়াল দখল, দেওয়াল লিখন শুরু হয়ে গিয়েছে মালদহে

ভোটের তিন মাস আগেই দেওয়াল দখল, দেওয়াল লিখন শুরু হয়ে গিয়েছে মালদহে
এবার টক্কর শুরু দেওয়ালে দেওয়ালে। ভোটের তিন মাস আগেই দেওয়াল দখল, দেওয়াল লিখন শুরু মালদহে

এবার টক্কর শুরু দেওয়ালে দেওয়ালে। ভোটের তিন মাস আগেই দেওয়াল দখল, দেওয়াল লিখন শুরু মালদহে

  • Share this:

#মালদহ: এবার টক্কর শুরু দেওয়ালে দেওয়ালে। ভোটের তিন মাস আগেই দেওয়াল দখল, দেওয়াল লিখন শুরু মালদহে। প্রার্থীর নাম ছাড়াই দেওয়াল লেখা, প্রতীক আঁকার কাজ এগিয়ে রাখছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। তবে দেওয়াল দখলে উল্লেখযোগ্য ভাবে এগিয়ে পদ্ম শিবির। পিছিয়ে নেই মালদহে শক্তিধর কংগ্রেসও। তুলনায় এখনও পিছিয়ে জোড়াফুল।

নির্বাচনী প্রচারে বরাবরই রাজনৈতিক দলগুলির হাতিয়ার দেওয়াল লিখন। সোশ্যাল মিডিয়ার যুগেও দেওয়াল লিখে প্রচারের জুড়ি নেই। প্রতি বছরই দেওয়াল দখল নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলির মধ্যে কার্যত প্রতিযোগিতা চলে। এমনকী দেওয়াল দখন নিয়ে গোলমাল,সংর্ঘষের ঘটনাও নতুন কিছু নয়। কিন্তু এবারই প্রথম ভোটের প্রায় তিন মাস আগেই অসংখ্য দেওয়াল দখল, লেখা শুরু হয়ে গিয়েছে মালদহে। জেলার বিভিন্ন বিধানসভা এলাকায় এখনই বিজেপি আর কংগ্রেসের মধ্যে দেওয়াল দখলের জোর টক্কর দেখা যাচ্ছে। সংখ্যায় অল্প হলেও কিছু দেওয়াল দখল করেছে তৃণমূলও। দেওয়াল দখল ও লেখায় প্রতিপক্ষকে পিছনে ফেলেছে পদ্ম শিবির। ইতিমধ্যেই জেলা জুড়ে বিভিন্ন ‘ইস্যু ভিত্তিক’ দেওয়াল লিখন শুরু করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বিজেপি কর্মীদের। পরে সময়মতো প্রার্থীদের নাম যুক্ত করে দেওয়া হবে। অনেক দেওয়ালে শুধু পদ্ম ফুল এঁকে জায়গা ফাঁকা রাখা হচ্ছে। শুধু দেওয়াল দখলই নয়, মালদহে বিভিন্ন এলাকায় বিধানসভা ভিত্তিক নির্বাচনী কার্যালয়ও খুলে ফেলেছ গেরুয়া শিবির। ভোট প্রস্তুতি এগতে সাংগঠনিক ভাবে ‘ ইলেকশন ইমারজেন্সি’ শুরু হয়ে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা বিজেপি সভাপতি।

তবে নিজেদের ‘গড়ে’ দেওয়াল দখলের লড়াইয়ে পিছিয়ে নেই কংগ্রেসও। এক ইঞ্চি জমিও না লড়ে প্রতিপক্ষকে ছাড়তে নারাজ হাত শিবির। বামেদের সঙ্গে জোট  বা সমঝোতা চুড়ান্ত হওয়ার অপেক্ষা না করেই নিজেদের জেতা বিধানসভা গুলিতে দেওয়াল লিখছে কংগ্রেস। ইতিমধ্যেই হাত চিহ্নে ভরেছে মালদহের অসংখ্য দেওয়াল। কর্মীরা উৎসাহিত হয়েই আগাম দেওয়াল লিখন করছেন বলে দাবি করেছেন, মালদহের কংগ্রেস বিধায়ক ভূপেন্দ্র নাথ হালদার।


তুলনায় মালদহে দেওয়াল দখলে এখনও পিছিয়ে শাসক দল। কিছু এলাকায় দেওয়াল দখল হলেও লেখার কাজ সেভাবে শুরু হয়নি। জেলা যুব সভাপতির প্রসেনজিত দাসের দাবি, লেখা শুরু না হলেও বাড়ির মালিকদের কাছ থেকে অনুমতিপত্র নিয়ে রাখার কাজ চলছে।  ভোটের এত আগে দেওয়াল দখল নজীরবিহীন। আগে কখনও এমন দেখেননি, মুচকি হেসে বলছেন সাধারন ভোটার।

SEBAK DEB SARMA

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

লেটেস্ট খবর