• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • গলায় গামছার ফাঁস! এক কিশোরের দেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য

গলায় গামছার ফাঁস! এক কিশোরের দেহ উদ্ধারকে ঘিরে চাঞ্চল্য

পরিবারের অভিযোগ, আইনুদ্দিনকে গামছা দিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করে দুষ্কৃতীরা বাঁশ ঝাড়ে ফেলে দিয়ে গেছে।

পরিবারের অভিযোগ, আইনুদ্দিনকে গামছা দিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করে দুষ্কৃতীরা বাঁশ ঝাড়ে ফেলে দিয়ে গেছে।

পরিবারের অভিযোগ, আইনুদ্দিনকে গামছা দিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করে দুষ্কৃতীরা বাঁশ ঝাড়ে ফেলে দিয়ে গেছে।

  • Share this:

#ইটাহার: ইটাহার থানার কাপাসিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের  চুরামন খান পাড়ায় আইনুদ্দিন খান নামে এক কিশোরের অস্বাভাবিক মৃত্যুকে ঘিরে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ হাসপাতালে দেহ পাঠিয়ে দিয়েছে৷ পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। ইটাহার থানার পুলিশ জানিয়েছেন, মৃতদেহে কোথাও কোনও আঘাতের চিহ্ন নেই। কীভাবে মৃত্যু হয়েছে কিশোরের, পুলিশের কাছেও তা পরিষ্কার নয়। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলেই মৃত্যুর কারণ সঠিকভাবে জানা যাবে বলে পুলিশের মত৷

জানা গেছে, ইটাহার থানার চূড়ামন খানপাড়ায় আইনুদ্দিন নামে এক কিশোরকে স্থানীয় বাসিন্দারা পড়ে থাকতে দেখেন। তড়িঘড়ি তাকে ইটাহার স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ খবর পেয়ে হাসপাতালে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

পরিবারের অভিযোগ, আইনুদ্দিনকে গামছা দিয়ে শ্বাসরোধ করে খুন করে দুষ্কৃতীরা বাঁশ ঝাড়ে ফেলে দিয়ে গেছে। তবে ইটাহার পুলিশ জানিয়েছেন, মৃত কিশোরের শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। তবে মুখে মাটি লেগে আছে। কী কারণে সেখানে গিয়েছিল সে, বা কীভাবে মুখে মাটি লাগল সে বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলেই মৃত্যুর কারন পরিষ্কার হবে।

Published by:Pooja Basu
First published: