Home /News /north-bengal /
Unknown Animal Footprint: ধূপগুড়িতে সবার চোখের আড়ালে ঘুরছে কে! ভয়ে কাঁটা সাধারণ মানুষ

Unknown Animal Footprint: ধূপগুড়িতে সবার চোখের আড়ালে ঘুরছে কে! ভয়ে কাঁটা সাধারণ মানুষ

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব চিত্র

Unknown Animal Footprint: মঙ্গলবার সকালবেলা প্রথম ডোরাকাটা কোন একটি প্রাণী কে দেখতে পান এক মহিলা বলে দাবি করেন।

  • Share this:

    #ধূপগুড়ি: আজানা জন্তুর পায়ের ছাপ নিয়ে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে ধূপগুড়ি থানা এলাকার ডাঙাপাড়া এলাকায়। এলাকার মানুষদের মধ্যেও ভয় ও সংশয় তৈরি হয়েছে এই পায়ের ছাপকে কেন্দ্র করে। কেউ বলছেন, এটি আসলে বাঘের পায়ের ছাপ। কেউ আবার সে কথা মানতে নারাজ। তবে সব মিলিয়ে একটা আতঙ্ক তৈরি হয়েছে এই এলাকায়। মঙ্গলবার সকালবেলা প্রথম ডোরাকাটা কোন একটি প্রাণী কে দেখতে পান এক মহিলা বলে দাবি করেন। মুহূর্তে আতঙ্ক ছড়ায় এলাকায়। এর পরে এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই মানুষের মধ্যে বাঘের আতঙ্ক ছড়ায়, খবর দেওয়া হয় ধূপগুড়ি থানার পুলিশকে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান ধূপগুড়ি থানা পুলিশ কর্মীরা, এর পর খবর দেওয়া হয় বিন্নাগুরি বন্যপ্রানী স্কোয়াডের বনকর্মীদের। খবর পেয়ে দুপুর নাগাদ তাঁরাও ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন, গোটা এলাকা পরিদর্শন করেন।

    বিভিন্ন জায়গায় পায়ের ছাপ দেখতে পান বন কর্মীরা, তবে আসলে কোন জন্তুর পায়ের ছাপ তা এখনও পরিষ্কার নয়। কোনও জন্তুর পায়ের ছাপ তা পরিষ্কার না হওয়ায় স্বাভাবিক ভাবে আতঙ্কিত এলাকাবাসী। তাদের অভয় দেওয়ার চেষ্টা করছে বনদফতর। বন কর্মীদের দাবি এটি কোন চিতা বাঘের পায়ের ছাপ নয়, অন্য কোনও জন্তুর পায়ের ছাপও হতে পারে। যদিও বনদফতরের পক্ষ থেকে গ্রামবাসীদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। এমনকি পটকা ও দিয়ে আসা হয়েছে গ্রামের বাসিন্দাদের হাতে।

    আরও পড়ুন: স্ত্রী কথায়-কথায় সন্দেহ করে! রাগে-দুঃখে মেয়েকে গলায় ফাঁস দিয়ে সেই দড়িতেই ঝুললেন পুলিশকর্মী

    গ্রামের বাসিন্দা সুমিত রায় বলেন, সকালবেলা আমার বৌদি যখন ঘর থেকে বাইরে বার হয় দেখতে পায় বাঁশ বাগানের পাশ দিয়ে বাঘ যাচ্ছে। নিমেষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে সকলের মধ্যে। আমরা খবর পাঠাই ধূপগুড়ি থানার পুলিশকে, এর পর বনদফতরে খবর যায়। গ্রামে আসেন বনকর্মীরা। পুলিশ  গোটা এলাকা ঘুরে দেখে। তাঁরা বলেছেন যে এটা বাঘের পায়ের ছাপ নয়, তবে অন্য কোনও প্রাণীর পায়ের ছাপ হয়ে থাকতে পারে। সকলকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন, তবে গ্রামের মানুষের দাবি চিতাবাঘ রয়েছে গ্রামে।

    আরও পড়ুন : রুশ বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক মোদির, মার্কিন চাপের মুখেও কি ‘বন্ধু’র পাশে ভারত?

    বিন্নাগুড়ি বন্যপ্রাণী স্কোয়াডের বিট অফিসার রাজীব চন্দ্র বলেন, আমাদের কাছে খবর আসে যে বারোঘরিয়া গ্রামের চিতাবাঘ ঢুকেছে, আমরা খবর পাওয়া মাত্রই গ্রামে এসেছি। গোটা এলাকা ঘুরে দেখলাম মানুষকে বুঝিয়ে বললাম যে এটা চিতা বাঘের পায়ের ছাপ নয়। তাঁদের হাতে কিছু পটকা দিয়ে এলাম, সঙ্গে রাতে সতর্ক থাকার কথাও বলা হয়েছে।

    Rocky Choudhury

    Published by:Uddalak B
    First published:

    Tags: North Bengal

    পরবর্তী খবর