মন্দিরের ‘মোহন’ পাচারের অভিযোগ ! কোচবিহারে কচ্ছপ পাচার চক্রের হদিশ, ধৃত ১

Representational Image

কোচবিহারের বাণেশ্বর শিবমন্দিরের শিব দিঘিতে কয়েকশো কচ্ছপের ঘর-সংসার। ‘মোহন’ নামেই তাদের পরিচিতি।

  • Share this:

    #কোচবিহার: কোচবিহারের বাণেশ্বর শিবমন্দিরের শিবদিঘি থেকে উধাও একের পর এক কচ্ছপ। অভিযোগ পেয়ে অভিযানে নামে পুলিশ। গতরাতে কচ্ছপ পাচারের অভিযোগে স্থানীয় এক যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। দিঘি থেকে কচ্ছপ চুরি করে খোলা বাজারে মোটা টাকায় বিক্রির অভিযোগ ধৃতের বিরুদ্ধে।

    কোচবিহারের বাণেশ্বর শিবমন্দিরের শিব দিঘিতে কয়েকশো কচ্ছপের ঘর-সংসার। ‘মোহন’ নামেই তাদের পরিচিতি। তাদের নারায়ণ জ্ঞানে পুজো করেন ভক্তরা। এই মোহনকে কেন্দ্র করেই মন্দির চত্বরকে হেরিটেজ ঘোষণার ভাবনা রাজ্যের। কয়েকমাস ধরেই শিবদিঘির সেই কচ্ছপচুরির অভিযোগ উঠছিল। বুধবার রাতে বিজয় মিত্র নামে স্থানীয় এক যুবককে শিবদিঘি লাগোয়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

    পেশায় শ্রমিক। কিছুদিন আগেই অসম থেকে ফিরেছে বিজয়। পুলিশের সূত্রে খবর,

    --বিজয়ের সঙ্গে আরও চারজন এ কাজে যুক্ত --আগে শিশুদের কচ্ছপ চুরির কাজে ব্যবহার করা হত --পরে নিজেরাই দিঘির লোহার প্রাচীর টপকে ভিতরে ঢুকে কচ্ছপ চুরি করত

    সময় বুঝে মোটা দামে বিক্রি করে দিত কচ্ছপ। পুলিশের দাবি, তুফানগঞ্জের মারুগঞ্জ বাজারের এক হোটেল ব্যবসায়ী আড়াই হাজার টাকায় কিনত এই কচ্ছপ। কোচবিহারের আবেগের সঙ্গে জড়িয়ে মোহন। সেই মোহন চুরির ঘটনায় বাড়ছে উদ্বেগ। পুলিশের পাশাপাশি তদন্ত শুরু করেছে বন দফতরও।

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published: