জনতা কার্ফু ! মাঝপথে থমকে গেল ট্রেন, নাকাল রেল যাত্রীরা

জনতা কার্ফু ! মাঝপথে থমকে গেল ট্রেন, নাকাল রেল যাত্রীরা

জনতা কার্ফুর জেরে গন্তব্যে পৌঁছানোর আগেই বন্ধ হয়ে গেল ট্রেন। চরম দূর্ভোগে যাত্রীরা।

  • Share this:

#মালদহ: জনতা কার্ফুর জেরে গন্তব্যে পৌঁছানোর আগেই বন্ধ হয়ে গেল ট্রেন। চরম দূর্ভোগে যাত্রীরা। শিয়ালদহ থেকে বালুরঘাট গৌড় লিংক এক্সপ্রেস ট্রেনের ঘটনা । সকালে ট্রেন মালদায় পৌঁছানোর পরেই বালুরঘাটে যাবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয় যাত্রীদের ।

ট্রেন থেকে নেমে পড়তে বাধ্য হন যাত্রীরা। এরপর ঘন্টার পর ঘন্টা মালদা শহরের রথবাড়ি মোড়ে অপেক্ষা। মিলছে না দক্ষিণ দিনাজপুরের যাওয়ার কোন ছোট বা বড় গাড়ি। ঘন্টার পর ঘন্টা ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে দাঁড়িয়ে থেকে পোহাতে হচ্ছে দুর্ভোগ, নাকাল যাত্রীরা। জনতা কার্ফুয়ে চরম দুর্ভোগ। যাত্রীরা জানান, শনিবার রাতে শিয়ালদহ থেকে বালুরঘাট, বুনিয়াদপুর সহ দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন এলাকায় পৌঁছানোর জন্য গৌড়লিংক এক্সপ্রেস ধরেন তাঁরা।

আগাম সংরক্ষিত টিকিট ছিল বেশিরভাগেরই । কিন্তু, সকালে ট্রেন মালদায় পৌছাতেই জানিয়ে দেওয়া হয় মালদার পর আর যাবে না গৌড়লিংক এক্সপ্রেস। রাতে কলকাতা থেকে ট্রেন ছাড়ার সময় এই বিষয়ে কিছুই জানানো হয়নি যাত্রীদের । ফলে সকালে মালদায় পৌঁছে মাথায় বাজ পরার মত অবস্থা হয় যাত্রীদের। কর্তৃপক্ষ ট্রেন চলবে না বলে জানান। কয়েকশো যাত্রী ট্রেন থেকে নেমে পড়তে বাধ্য হন । রেল যোগাযোগ বন্ধ থাকায় তাঁরা গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য সড়কপথের ভরসার মালদা শহরের রথবাড়ি মোড় এলাকায় চলে আসেন। কিন্তু অন্যান্য দিনের তুলনায় জনতা কারফিউ এর ফলে একেবারে উল্টো ছবি ছিল এদিন রথবাড়ি এলাকায়। রাস্তায় ছোট বা বড় কোন গাড়ি না পাওয়ায় দুর্ভোগ চরমে ওঠে। সকাল থেকে লাগেজপত্র নিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয় যাত্রীদের ।

বিপাকে পড়েন প্রচুর শিশু এমনকি মহিলারাও। কয়েক গুণ বেশি টাকা দিতে চাইলেও কোন গাড়ি মেলেনি। বেলার দিকে অনেকে বাধ্য হয়ে মালদহের বিভিন্ন হোটেলে ঘর পেতে ছোটাছুটি করেন । রেল যাত্রীদের ক্ষোভ, ট্রেন দক্ষিণ দিনাজপুর বা বালুরঘাট যাবে না তা আগাম জানলে রাতেই কলকাতা থেকে রওনা হতেন না তাঁরা ।মাঝপথে ট্রেন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় চরম দুর্ভোগের মুখে পড়তে হয়।

First published: March 22, 2020, 3:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर