Home /News /north-bengal /

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-শুভেন্দু অধিকারীর বিরোধ মেটাতে ভরসা মহাদেব! প্রার্থনা, হোমযজ্ঞের আয়োজন রায়গঞ্জে

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-শুভেন্দু অধিকারীর বিরোধ মেটাতে ভরসা মহাদেব! প্রার্থনা, হোমযজ্ঞের আয়োজন রায়গঞ্জে

সরাসরি শুভেন্দুর নাম না নিলেও মমতা বুঝিয়ে দেন, দীর্ঘ লড়াইয়ের পর তৃণমূল এখন বটবৃক্ষে পরিণত হয়েছে৷ ১৯৯৮ সালে দল প্রতিষ্ঠার পর কীভাবে লড়াই করতে হয়েছে, সেকথাও মনে করিয়ে দেন তৃণমূলনেত্রী৷ এই প্রসঙ্গেই দুই মেদিনীপুরের লড়াইয়ের কথা বলেন তিনি৷ পূর্ব মেদিনীপুরের কথা বলতে গিয়ে বলেন, 'তৃণমূল যখন তৈরি করেছিলাম, আমার মনে আছে প্রথমবার অখিল লড়াই করেছিল পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথি থেকে৷ আমরা জিততে পারিনি, দ্বিতীয় হয়েছিলাম৷ তৃণমূল কংগ্রেস অত দুর্বল নয়৷ যদি কেউ মনে করে তৃণমূল কংগ্রেসকে ব্ল্যাকমেলিং করব, দর কষাকষি করব, তৃণমূল কংগ্রেসকে নির্বাচনের সময় দুর্বল করব৷ তাহলে সেই বিজেপি দল এবং বিজেপি দলের যারা বন্ধুদের বলব আগুন নিয়ে খেলবেন না, আর যাকে পারেন জব্দ করতে, তৃণমূল কংগ্রেসকে পারবেন না৷ কারণ তৃণমূল কংগ্রেস মানুষকে আলিঙ্গন করে বেঁচে আছে৷'

সরাসরি শুভেন্দুর নাম না নিলেও মমতা বুঝিয়ে দেন, দীর্ঘ লড়াইয়ের পর তৃণমূল এখন বটবৃক্ষে পরিণত হয়েছে৷ ১৯৯৮ সালে দল প্রতিষ্ঠার পর কীভাবে লড়াই করতে হয়েছে, সেকথাও মনে করিয়ে দেন তৃণমূলনেত্রী৷ এই প্রসঙ্গেই দুই মেদিনীপুরের লড়াইয়ের কথা বলেন তিনি৷ পূর্ব মেদিনীপুরের কথা বলতে গিয়ে বলেন, 'তৃণমূল যখন তৈরি করেছিলাম, আমার মনে আছে প্রথমবার অখিল লড়াই করেছিল পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথি থেকে৷ আমরা জিততে পারিনি, দ্বিতীয় হয়েছিলাম৷ তৃণমূল কংগ্রেস অত দুর্বল নয়৷ যদি কেউ মনে করে তৃণমূল কংগ্রেসকে ব্ল্যাকমেলিং করব, দর কষাকষি করব, তৃণমূল কংগ্রেসকে নির্বাচনের সময় দুর্বল করব৷ তাহলে সেই বিজেপি দল এবং বিজেপি দলের যারা বন্ধুদের বলব আগুন নিয়ে খেলবেন না, আর যাকে পারেন জব্দ করতে, তৃণমূল কংগ্রেসকে পারবেন না৷ কারণ তৃণমূল কংগ্রেস মানুষকে আলিঙ্গন করে বেঁচে আছে৷'

তাদের আশা ভগবান মহাদেবের আর্শীবাদে দুই জনের মধ্যে এই মতবিরোধ ঘুচে যাবে।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও   শুভেন্দু অধিকারির মধ্যে মতবিরোধ মিটিয়ে ফেলতে ভগবান মহাদেবের শরণাপন্ন হলেন রায়গঞ্জ পৌরসভা ২২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অসীম অধিকারি। দেবীনগর দেবপুরিতে রাস পূর্ণিমায় হোম যজ্ঞ অনুষ্ঠান করলেন স্থানীয় কাউন্সিলর অসীম অধিকারী। তাদের আশা ভগবান মহাদেবের আর্শীবাদে  দুই জনের মধ্যে এই মতবিরোধ ঘুচে যাবে। আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতারা ঐক্যবদ্ধ লড়াই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তৃতীয় বারের জন্য রাজ্যের মসনদে বসাবে। কাউন্সিলরের অনুগামীরাও মনে করেন যে  অশুভ শক্তির কারণে এই মতবিরোধ যজ্ঞের মাধ্যমে তা মিটে যাবে।

রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেসের ডাকসাইটের নেতা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে বিবাদ দেখা দেওয়ায় মন্ত্রী সভা থেকে পদত্যাগ করেছেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক। শুভেন্দু অধিকারী উত্তর দিনাজপুর জেলায় দীর্ঘদিনের পর্যবেক্ষকের দায়িত্বে ছিলেন। দীর্ঘদিন রায়গঞ্জ পৌরসভা কংগ্রেসের দখলে থাকার পর গত পৌরসভা নির্বাচনে পর্যবেক্ষক শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বেই রায়গঞ্জ পৌরসভা কংগ্রেসের হাতে থেকে ছিনিয়ে নেয় তৃণমূল কংগ্রেস। দীর্ঘদিন উত্তর দিনাজপুর জেলায় দায়িত্বে থাকার কারণে শুভেন্দু অধিকারির সঙ্গে বহু কর্মী নেতার সঙ্গে ব্যক্তিগত সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল।  শুভেন্দু অধিকারির সঙ্গে দলের বিবাদের ফলে সবচাইতে সমস্যায় পড়েছেন নীচুতলার কর্মীরা। একদিকে দলের বিভিন্ন পদে থাকার কারণে  দলের প্রতি আনুগত্য অন্যদিকে ব্যক্তিগত সম্পর্কের কারণে শুভেন্দু অধিকারীকে ছেড়ে দিতেও পারছেন না। ফলে নীচু তলার কর্মীদের কাছে উভয় সঙ্কট হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এই সঙ্কট মেটাতে রায়গঞ্জ পৌরসভার তৃণমূল কংগ্রেসের ২২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসীম অধিকারী ভগবান মহাদেবের কাছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শুভেন্দু অধিকারীর ছবি রেখে হোম যজ্ঞ করলেন দেবীনগরের দেবপুরী পরিবার।  অসীমবাবু নিজেও শিব ভক্ত।তাদের উদ্যোগে তৈরী হয়েছে সুদৃশ্য শিব মন্দির। আয়োজকদের  আশা, মহাদেবের আর্শীবাদে তাদের দুই নেতা নেত্রীর মিলন ঘটিয়ে দলের মধ্যে শান্তি ফেরাবে। তাদের নেতৃত্বেই আগামী বিধানসভা নির্বাচন তৃণমূল কংগ্রেস একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করে তৃতীয়বারের জন্য রাজ্যে ক্ষমতায় আসবে। অসীমবাবুর অনুগামীরাও দাদার এধরনের উদ্যোগে খুশী। কারণ দলের মধ্যে এই অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে তারাও সমস্যায় পড়েছেন। তাই ভগবান মহাদেবের আর্শীবাদে দুই নেতা নেত্রী মিলিত হবে। তারা একত্রিত হলেই দলের মধ্যেও সুস্থ বাতাবরণ ফিরে আসবে বলে মনে করেন দেবীনগর এলাকার তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা।

Uttam Paul

Published by:Elina Datta
First published:

Tags: Mamata Banerjee, Suvendu Adhikari

পরবর্তী খবর