Home /News /north-bengal /
কলেজে ভর্তির টাকা দিয়ে দুস্থ মেধাবীর পাশে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ

কলেজে ভর্তির টাকা দিয়ে দুস্থ মেধাবীর পাশে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ

এই ট্যুইট বার্তার উত্তরে কেজরিওয়াল জানিয়েছেন পড়ুয়াদের শুধুমাত্র পড়াশোনা নয়, তাঁদের পড়াশোনা শেষ করে একজন ভাল মানুষ ও দায়িত্ববান নাগরিক গড়ে তোলার উদ্দেশ্যেই এই উদ্যোগ নিয়েছে দিল্লি সরকার ।

এই ট্যুইট বার্তার উত্তরে কেজরিওয়াল জানিয়েছেন পড়ুয়াদের শুধুমাত্র পড়াশোনা নয়, তাঁদের পড়াশোনা শেষ করে একজন ভাল মানুষ ও দায়িত্ববান নাগরিক গড়ে তোলার উদ্দেশ্যেই এই উদ্যোগ নিয়েছে দিল্লি সরকার ।

কলেজে ভর্তির নামে তোলা আদায়। কাঠগড়ায় একাধিক কলেজের ছাত্রসংসদ। অনিয়ম রুখতে রাস্তায় নামতে হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রীকে। ঠিক এমনই পরিস্থিতিতে উল্টো ছবি মালদহের গাজলে।

  • Share this:

    #মালদহ: কলেজে ভর্তির নামে তোলা আদায়। কাঠগড়ায় একাধিক কলেজের ছাত্রসংসদ। অনিয়ম রুখতে রাস্তায় নামতে হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রীকে। ঠিক এমনই পরিস্থিতিতে উল্টো ছবি মালদহের গাজলে। দুস্থ মেধাবী ছাত্রীর পাশে দাঁড়াল তৃণমূল ছাত্র পরিষদ।

    বাবা দোকানে দোকানে জল বিক্রি করেন। মা বিড়ি বাঁধেন বাড়িতেই। দুজনের সামান্য উপার্জনে কোনও মতে চলে সংসার।

    গাজলের প্রত্যন্ত শাহজাদপুর পঞ্চায়েতের পীরপাড়ার বাসিন্দা মীরা সিংহ। অভাবী বাপ-মা তার বিয়ে পাকা করে ফেলেছিলেন আগেই। কিন্তু মেয়ের জেদের কাছে হার মানতে বাধ্য হন শ্রীমন্ত-সুমিত্রা। পাশে দাঁড়ায় প্রশাসন। সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দেন স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকারাও। সকলের সহযোগিতায় উচ্চমাধ্যমিকে ৮৬ শতাংশেরও বেশি নম্বর পায় গাজলের তরিকুল্লাহ সরকার হাইস্কুলের মেধাবী ছাত্রী। তারপরও টাকার অভাবে কলেজে ভর্তি বন্ধ হওয়ার জোগাড় হয়। খবর পেয়ে মীরার পাশে দাঁড়ায় জেলা টিএমসিপি। এলাকার দুস্থ মেধাবী ছাত্রীর পাশে দাঁড়াতে পেরে খুশি টিএমসিপি সদস্যরাও।

    পড়াশোনা শেষ করে ইংরেজি শিক্ষিকা হতে চান মীরা। তাঁর আশা, এভাবে সকলের সহযোগিতা পেলে, একদিন তাঁর স্বপ্ন সত্যি হবেই।

    First published:

    Tags: College Admission, Maldah, TMCP

    পরবর্তী খবর