Home /News /north-bengal /
Siliguri News: উৎসবে মাতল তৃণমূল, ভোটের আগেই জয়ের আনন্দে মাতোয়ারা কর্মীরা!

Siliguri News: উৎসবে মাতল তৃণমূল, ভোটের আগেই জয়ের আনন্দে মাতোয়ারা কর্মীরা!

আনন্দে তৃণমূল

আনন্দে তৃণমূল

Siliguri News: শিলিগুড়িতে ৮ আসনে বিনা লড়াইয়ে জয়ী তৃণমূল, ১টিতে আদিবাসী বিকাশ পরিষদ, উৎসবে মাতোয়ারা সমর্থকেরা!

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: ভোটের আগেই বিজয় উৎসবে সামিল তৃণমূল! আসছে ২৬ জুন শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদের নির্বাচন। তার আগেই ফল ঘোষণা ৯ আসনে! ৯টির মধ্যে ৮টিই তৃণমূলের দখলে। ১টি আদিবাসী বিকাশ পরিষদের কব্জায়। বিনা লড়াইয়ে জয়ী ৯ প্রার্থী! শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদের নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় একাধীক আসনে জয়ী হল তৃণমূল। ফাঁসদেওয়ার দুটি পঞ্চায়েত সমিতিতে জয়ী হল তৃণমূল। ওই ব্লকেরই বিধাননগর ১ গ্রাম পঞ্চায়েতে ৬ আসন বিরোধী শূণ্য। জয়ী হল তৃণমূল প্রার্থীরা।

১৯ আসন বিশিষ্ট বিধাননগর ১ নং গ্রাম পঞ্চায়েত কার্যত ঘাসফুলের দখলে। এই জয় মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়ন মূলক কাজের ফসল। বিধাননগরবাসীকে জয় উৎস্বর্গ তৃণমূলের। বলেন তৃণমূল নেতা কাজল ঘোষ। এদিনই বিজয়ীদের গলায় মালা পড়িয়ে, সবুজ আবির মাখিয়ে উৎসবে মেতে ওঠে তৃণমূলের কর্মী, সমর্থকেরা। চলে মিষ্টি বিলিও। অন্যদিকে খড়িবাড়িতেও এক আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় এসছে। খড়িবাড়ির রানিগঞ্জ পানিশালী গ্রাম পঞ্চায়েত নিজেদের দখলেই রাখলো আদিবাসী বিকাশ পরিষদ। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হলেন পুষ্পা ওঁরাও লাকড়া।

আরও পড়ুন: টেটে নতুন চাঞ্চল্যকর তথ্য, উপেন বিশ্বাসের তোলা অভিযোগের তদন্ত করবে সিবিআই!

এই জয় বাগান শ্রমিকদের উৎসর্গ করেছেন তিনি। পরে প্রার্থীকে লাল আবীরে রাঙিয়ে মিছিল করে সমর্থকেরা "কিছু আসন শেষদিকে ম্যানেজ করেছে তৃণমূল। যেখানে তৃণমূল বিরোধীদের সমর্থন জানানো হয়েছিল। ভয় দেখিয়ে কিছু প্রার্থীকে মনোনয়ন প্রত্যাহারও করানো হয়েছে।" অভিযোগ সিপিএমের জেলা সম্পাদক সমন পাঠকের। তিনি বলেন, এই ক'টা আসনে জয় কোনো ফ্যাক্টর নয়। ৯০ শতাংশ আসনেই বামেরা প্রার্থী দিয়েছে। লড়াইয়ের জায়গাতেই রয়েছে বামেরা। ৮ আসন জিতেছে মানে মহকুমা পরিষদ দখল হয়নি।"

আরও পড়ুন: দিলীপ ঘোষের কাছে এল ফোন, তাতেই তুমুল আলোড়ন! ফের ক্ষমতা বৃদ্ধির ইঙ্গিত?

ওই এলাকায় সাংগঠনিক দূর্বলতা থাকায় প্রার্থী দিতে পারিনি। তৃণমূল ওই এলাকায় সংখ্যাগরিষ্ঠ। তাই কিছু কিছু আসনে জয়ী হয়েছে। আবার যেখানে নির্দল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হল, সেখানে তৃণমূলের প্রার্থী দিতে না পারাটা বড় ধরনের ধাক্কা।" টেলিফোনে আমাদের জানান বিজেপির জেলা সভাপতি আনন্দ বর্মন। তিনি বলেন, লোকসভা, বিধানসভার পর গ্রামের ভোটেও জয় পাবে বিজেপিই।

Published by:Suman Biswas
First published:

Tags: TMC, West Bengal news

পরবর্তী খবর