• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • কলকাতায় আসা হল না, নেত্রীর বার্তা শুনে ডিম- ভাতে ভুঁড়িভোজ তৃণমূল কর্মীদের

কলকাতায় আসা হল না, নেত্রীর বার্তা শুনে ডিম- ভাতে ভুঁড়িভোজ তৃণমূল কর্মীদের

সভা শেষে কর্মীদের খাওয়াদাওয়ার আয়োজন৷

সভা শেষে কর্মীদের খাওয়াদাওয়ার আয়োজন৷

সভা শেষে প্রায় তিন হাজার কর্মীদের জন্য ভাত, ডাল এবং ডিমের ঝোলের ব্যবস্থা ছিল।

  • Share this:

#হেমতাবাদ: অন্যান্য বার কলকাতায় গিয়ে সভায় যোগ দেওয়ার পাশাপাশি একসঙ্গে খাওয়াদাওয়া হয়৷ কিন্তু এবছর ব্যতিক্রম৷এবার তাই নিজেদের এলাকাতেই ২১ জুলাই উপলক্ষে পেটপুরে দলীয় কর্মীদের খাওয়ালেন উত্তর দিনাজপুর জেলা যুব কংগ্রেস সভাপতি গৌতম পাল। গৌতমবাবুর এই উদ্যোগে খুশি হেমতাবাদের তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা।

অন্যান্য বছর ২১ জুলাই  দিনটিতে দলে দলে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা কলকাতার সমাবেশে যোগ দেন৷ উত্তর দিনাজপুর জেলা থেকেও প্রচুর কর্মী সমর্থক কলকাতায় যেতেন৷ কিন্তু করোনার দাপটে এ বছর সেসব হয়ে ওঠেনি৷ ভার্চুয়াল সভা করতে বাধ্য হয়েছে দল৷ জেলায় জেলায় তৃণমূলনেত্রীর ভাষণ শুনেছেন কর্মী সমর্থকরা৷

 অন্যান্যবার রাজ্য নেতারা কর্মীদের খাওয়া দাওয়ার ব্যবস্থা করে থাকেন।  বিগত কয়েক বছরে এটাই  অভ্যাস হয়ে গিয়েছিল তৃণমূল কর্মীদের কাছে। ২১ জুলাই দিনটির জন্য তাঁরাও মুখিয়ে থাকতেন৷ সেই প্রথা ভেঙে কর্মী সমর্থকরা কলকাতায় যেতে না পেরে হতাশ হয়েছেন। দলীয় কর্মী সমর্থকদের চাঙ্গা করতে উত্তর দিনাজপুর তৃণমূল যুব কংগ্রেস সভাপতি গৌতম পাল হেমতাবাদে ভুঁড়িভোজের বিশেষ ব্যবস্থা করেন।

হেমতাবাদে জায়েন্ট স্ক্রিন লাগিয়ে নেত্রীর ভার্চুয়াল সভা শোনার ব্যবস্থা করা হয় কর্মীদের জন্য। সভা শেষে প্রায় তিন হাজার কর্মীদের জন্য ভাত, ডাল এবং ডিমের ঝোলের ব্যবস্থা ছিল। জেলা যুব নেতার এই উদ্যোগে খুশি কর্মীরাও। রহমত আলি নামে এক তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী জানান, কলকাতায় যেতে না পারায় তাঁরা হতাশ। যুব সভাপতির এই উদ্যোগে তাঁরা দুধের স্বাদ ঘোলে মেটালেন।যুব নেতা গৌতম পাল জানান,   প্রতি বছরের  রীতি যাতে নষ্ট না হয় তার জন্য দলীয় কর্মী সমর্থকদের খাবারের ব্যবস্থা করেছেন।

Uttam Paul

Published by:Debamoy Ghosh
First published: