Home /News /north-bengal /
TMC: নির্দল কাঁটা সরাতে নয়া নিদান তৃণমূল নেতার! পাশে নেই দল, সাফ জানালেন জেলা সভানেত্রী 

TMC: নির্দল কাঁটা সরাতে নয়া নিদান তৃণমূল নেতার! পাশে নেই দল, সাফ জানালেন জেলা সভানেত্রী 

TMC: নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে প্রকাশ্যে নির্দল প্রার্থী ও তাদের অনুগামীদের হুমকি দেন ফুলবাড়ির তৃণমূল নেতা দেবাশীষ প্রামানিক।

  • Share this:

#কলকাতা: নিন্দনীয় বার্তা। তাকে আমরা সমর্থন করি না। এটা তাঁর ব্যক্তিগত মতামত। যার দায়িত্ব দল কখনই নেবে না। আর ধমকে চমকে ভোটে জেতা যায় না। সাধারন মানুষ দিদির সঙ্গে আছেন। দিদির উন্নয়ন প্রকল্পের সঙ্গে আছেন।" দেবাশীষ প্রামাণিককে একহাত নিয়ে সাফ জবাব দিলেন দার্জিলিং জেলা তৃণমূল সভানেত্রী পাপিয়া ঘোষ। কেন তিনি এমনটা বললেন? কিসের প্রেক্ষিতে? নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে প্রকাশ্যে নির্দল প্রার্থী ও তাদের অনুগামীদের হুমকি দেন ফুলবাড়ির তৃণমূল নেতা দেবাশীষ প্রামানিক। তিনি আবার জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষও। যা নিয়ে জোর বিতর্ক শিলিগুড়িতে।

মহকুমা পরিষদের নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে হুমকি "ভাষণ" তৃণমূল নেতা দেবাশীষ প্রামাণিকের। গতকাল রাতে ফাঁসিদেওয়ার চটহাটের সভায় হুমকি ভাষণে অভিযুক্ত নেতা। "নির্দল বলে কিছু থাকবে না। রাস্তায় কোনও নির্দলের পোস্টার, পতাকা থাকবে না। সব খুলে দিতে হবে। যদি কোনও তৃণমূল নেতা, কর্মী নির্দলের হয়ে প্রচারে যান, তাঁর নাম পেয়ে যাবো। তাঁদের বাড়িতে পুলিশ যাবে। জেলে ঢুকিয়ে দেওয়া হবে। পুলিশ আমাদের, এসডিও আমাদের, ডিএসপি আমাদের, বিডিও আমাদের। তৃণমূল ছাড়া কেউ থাকবে না। নির্দলকে কোনও মিটিং করতে দেবেন না। নির্দলকে কোনও বাড়িতে ঢুকতে দেবেন না।" এই নিদানই দিয়েছিলেন তিনি। আর তা ভাইরাল হতেই জোর বিতর্ক। বিরোধীরা একসুরে আক্রমণ শানান।

আরও পড়ুন - দিল্লিতে পৌঁছেই পাওয়ারের সঙ্গে বৈঠকে মমতা! বুধবার আসছে কংগ্রেস, বামেরাও

"পায়ের তলায় মাটি নেই। ভয়ে, হতাশায় তৃণমূলের এই বহিঃপ্রকাশ। তাই আজ হুমকি দিচ্ছে। এলাকায় সন্ত্রাসের পরিবেশ সৃষ্টি করছে।" বললেন নির্দল প্রার্থী আখতার আলি। তিনিই ফাঁসিদেওয়ার যুব সভাপতি ছিলেন। প্রার্থীপদ পছন্দ না হওয়ায় নির্দল হয়ে লড়ার সিদ্ধান্ত নেন। আজ দেবাশীষ প্রামানিকের নামে নির্বাচন কমিশনের কাছে নালিশও জানান। "রাজ্যেই গণতন্ত্র নেই। পুলিশও দলদাসে পরিণত হয়েছে। তবে সাধারন মানুষ বিজেপির সঙ্গে আছে। সাধারন মানুষকে সঙ্গে নিয়েই বিজেপি একে রুখবে।' বললেন জেলা বিজেপি সভাপতি আনন্দ বর্মন। "গোটা রাজ্যেই গনতন্ত্র নেই। নির্দলদের এ ভাবে কেউ আটকাতে পারে নাকি। মানুষ সব দেখছে। এটা ওদের দলেরই নির্দেশ। তাই হুমকি দিচ্ছে। এ ভাবে হুঙ্কার দিলে হবে। মানুষ এর জবাব দেবে।" বললেন সিপিএমের জেলা সম্পাদক সুমন পাঠক।

Partha Sarkar
Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Siliguri

পরবর্তী খবর