হোম /খবর /উত্তরবঙ্গ /
সাইকেল চোর অপবাদে শিক্ষককে মার, গা ঢাকা দেওয়ার আগেই গ্রেফতার তৃণমূল নেতা

TMC Co Ordinator Arrested in Malda: সাইকেল চোর অপবাদে শিক্ষককে মার, গা ঢাকা দেওয়ার আগেই গ্রেফতার তৃণমূল নেতা

ধৃত তৃণমূল কো অর্ডিনেটর পরিতোষ চৌধুরী (মাঝখানে)৷

ধৃত তৃণমূল কো অর্ডিনেটর পরিতোষ চৌধুরী (মাঝখানে)৷

গত ১৭ অক্টোবর বাড়ি থেকে সাইকেল চুরি যাওয়ার ঘটনায় সুদীপ টুডু নামে এক স্কুল শিক্ষককে দলবল নিয়ে মারধর করার অভিযোগ ওঠে ওই তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে (TMC Co Ordinator Arrested in Malda)।

  • Last Updated :
  • Share this:

#মালদহ: মালদহে গ্রেপ্তার তৃণমূলের ওয়ার্ড কো-অর্ডিনেটর। পরিতোষ চৌধুরী ওরফে সেভেনকে গ্রেফতার করল ইংরেজবাজার থানার পুলিশ (TMC Co Ordinator Arrested in Malda)। চোর অপবাদে আদিবাসী স্কুল শিক্ষককে মারধর ও হেনস্থার ঘটনায় গ্রেপ্তার তৃণমূল ওয়ার্ড কো-অর্ডিনেটর। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে, মালদা (Malda News) টাউন স্টেশন থেকে পরিতোষ চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে আগেই জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা শুরু করেছিল পুলিশ।

গত ১৭ অক্টোবর বাড়ি থেকে সাইকেল চুরি যাওয়ার ঘটনায় সুদীপ টুডু নামে এক স্কুল শিক্ষককে দলবল নিয়ে মারধর করার অভিযোগ ওঠে ওই তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। তাঁকে গ্রেপ্তারের দাবিতে মালদহ শহর অচল করে বিক্ষোভ দেখায় আদিবাসীদের বিভিন্ন সংগঠন (TMC Co Ordinator Arrested in Malda)। দ্রুত গ্রেফতার না হলে ফের আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছিল আদিবাসী সংগঠন গুলি। এর পর থেকে অভিযান জোরালো করে পুলিশ।

সোমবার সকালে ট্রেন ধরে মালদহ ছাড়ার পরিকল্পনা করেন ওই তৃণমূল নেতা। কিন্তু তার আগেই তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ৷

পরিতোষ চৌধুরীকে এদিন মালদহ আদালতে তোলা হয়। পুলিশ তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের হেফাজতের আবেদন জানায়। আদালত তিন দিনের পুলিশ হেফাজত মঞ্জুর করে। উল্লেখ্য, এই ঘটনায় আগে দু' জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

আরও পড়ুন: রাজ্যে ক্লাস নাইন থেকে বারো ক্লাস অব্দি খুলবে স্কুল, খোলা হবে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়...

ঘটনার সূত্রপাত গত ১৭ অক্টোবর দুপুর নাগাদ। মালদহের ইংরেজবাজার পুরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ডের কো অর্ডিনেটর পরিতোষ বাবু।

আক্রান্ত স্কুল শিক্ষকের অভিযোগ, তৃণমূল নেতার বাড়িতে সাইকেল চুরির ঘটনায় আচমকাই তাঁকে রাস্তায় আটকানো হয়। ওই দিন মালঞ্চপল্লি এলাকায় এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে ফিরছিলেন তিনি। আটক করার পর চোর অপবাদ দিয়ে ওয়ার্ড কো-অর্ডিনেটরের এর নেতৃত্বে তাঁকে মারধর শুরু করা হয় বলে দাবি। শিক্ষক পরিচয় দিলেও রেহাই মেলেনি। শুধু মারধর নয়, এর পর বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ওই শিক্ষকের উপের নিজের পোষা কুকুরকে লেলিয়ে দেওয়ার অভিযোগও আনা হয়।

যদিও ঘটনার পরেই দুঃখ প্রকাশ করেন অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা। ঘটনার জন্য নিজে অনুতপ্ত বলেও জানান তিনি। শিক্ষক পরিচয় জানার পর তাঁকে আর মারধর করা হয়নি বলেও দাবি করেন পরিতোষবাবু।

কিন্তু, বিষয়টি চাউর হতেই ঘটনা অন্যমাত্রা নেয়। আদিবাসী শিক্ষক নিগ্রহের অভিযোগ তুলে আন্দোলনে নেমে পড়ে একাধিক আদিবাসী সংগঠন। ২২ অক্টোবর মালদহ শহরের ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ, পাশাপাশি বিশাল জামায়েত সহ তীর-ধনুক নিয়ে ধিক্কার মিছিল করে আদিবাসীরা।

মালদহের পুলিশ সুপার অলোক রাজরিয়া জানিয়েছেন,এই ঘটনায় অভিযোগ অনুযায়ী নির্দিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়। তাই, অভিযুক্ত তৃণমূল নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনায় প্রয়োজনীয় তদন্ত করছে।

এ দিন ইংরেজবাজার থানায় আনার পর আদালতে নিয়ে যাওয়ার পথে ওই তৃণমূল নেতাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি অবশ্য এ নিয়ে সংবাদমাধ্যমে কোনও মন্তব্য করতে চাননি।

Sebak Deb Sharma

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Malda, TMC