প্রাক্তন মন্ত্রী, তবু লিফলেট ছাপিয়ে কেন দুঃখপ্রকাশ করতে হল তৃণমূল প্রার্থীকে?

Krishnendu Narayan Chowdhury

সকাল থেকেই মালদহ শহরের দূর্গাবাড়ি মোড়, গৌড় রোড, ঝলঝলিয়া, রবীন্দ্র অ্য়াভিনিউ, মহেশমাটি, সুকান্ত মোড়, ভবানী মোড় -প্রভৃতি এলাকা থেকে প্রচারপত্র বিলি হয়।

  • Share this:

 #মালদহ: প্রচারপত্র ছাপিয়ে 'দুঃখপ্রকাশ' মালদহের ইংরেজবাজারের তৃণমূল প্রার্থী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরীর। ২০১১ সালে ভোটে জিতে মন্ত্রী হয়েছিলেন কৃষ্ণেন্দুবাবু৷ কিন্তু ২০১৬ সালের নির্বাচনে মন্ত্রী পদে থেকেও ইংরেজবাজারে হেরে গিয়েছিলেন তিনি। তাঁর অফিস ও অনুগামীদের দুর্ব্যবহারে অনেকেই রুষ্ট হয়েছিলেন বলে অভিযোগ। যার প্রভাব পড়েছিল ভোট বাক্সে৷

এ বার ফের ইংরেজবাজার কেন্দ্রে কৃষ্ণেন্দু নারায়ণের উপরে ভরসা রেখেছে শাসক দল৷ তাই প্রচারপত্র ছাপিয়ে ভোটারদের কাছে দুঃখপ্রকাশ কৃষ্ণেন্দুর। মঙ্গলবার নিজের হাতেই সেই প্রচারপত্র বিলি করলেন ইংরেজবাজারের তৃণমূল প্রার্থী। তাঁর অফিস থেকে মানুষের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের যে অভিযোগ উঠেছিল, তার জন্য লিফলেট ছাপিয়ে ক্ষমা চেয়েছেন প্রাক্তন মন্ত্রী৷

এদিন সকাল দশটা নাগাদ অভিনব ছবি ধরা পড়ে মালদহ শহরে। দেখা যায় শহরের একাধিক এলাকায় রাস্তার মোড়ে দাঁড়িয়ে প্রচারপত্র বিলি করছেন তৃণমূলের প্রার্থী থেকে নেতা-কর্মী, ওয়ার্ড কোঅর্ডিনেটররা। পথচলতি মানুষ থেকে শুরু করে অটো, টোটো, রিক্সার যাত্রী- সবার হাতে তুলে দেওয়া হয় "নির্বাচক মণ্ডলীর প্রতি বিনম্র আবেদন"- শিরোনাম দেওয়া প্রচারপত্র। স্বাভাবিকভাবেই সাধারণের মধ্যে কৌতূহল তৈরি হয়।

সাধারণ মানুষ, তৃণমূল সমর্থক থেকে শুরু করে রাজনৈতিক বিরোধীরাও চোখ রাখেন শহরে ছড়িয়ে দেওয়া এই প্রচারপত্রে। ইংরেজবাজার কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরীর আবেদন হিসাবে প্রচারিত এই প্রচারপত্রে মন্ত্রী থাকাকালীন বিধানসভা ভোটে হেরে যাওয়া নিয়ে আত্মসমীক্ষা তুলে ধরা হয়েছে। তৃণমূল প্রার্থী কৃষ্ণেন্দুর প্রচারপত্রে বলা হয়, "যখন ছিলাম অনেকে আমার বিরুদ্ধে কাজ করেছে। আমার অফিসের কিছু লোকের ব্যবহারে অনেকে আঘাত পেয়েছেন। আমি তাঁদের কাছে দুঃখপ্রকাশ করছি।"

এর পাশাপাশি অতীতের মতো আগামী দিনেও মানুষের পাশে থেকে কাজ করার বার্তা দিয়ে, ভোটে জয়যুক্ত করার আবেদন জানানো হয় প্রচার পত্রের মাধ্যমে।সকাল থেকেই মালদহ শহরের দূর্গাবাড়ি মোড়, গৌড় রোড, ঝলঝলিয়া, রবীন্দ্র অ্য়াভিনিউ, মহেশমাটি, সুকান্ত মোড়, ভবানী মোড় -প্রভৃতি এলাকা থেকে প্রচারপত্র বিলি হয়।

মালদহ শহরের নেতাজি মোড়ে নিজের হাতে প্রচারপত্র বিলি করেন প্রার্থী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ। তৃণমূল প্রার্থী বলেন, 'মানুষের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের অভিযোগ পেয়ে আমি অফিসে সিসিটিভি বসাই৷ মানুষ অভিজ্ঞতার থেকে শিক্ষা নিয়ে পরিণত হয়৷ আমি অতীত থেকে শিক্ষা নিয়েছি৷ আর মালদহের মানুষও বুঝেছেন আমাকে জয়ী না করলে দিদির হাত যেমন দুর্বল হয়,  সেরকম মানুষেরও অসুবিধে হয়৷'

যদিও তাঁর দুঃখ প্রকাশকে কটাক্ষ করেছেন বিজেপি জেলা সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মণ্ডল। তিনি পাল্টা বলেন, 'এখন দুঃখ প্রকাশ করছেন, ভোটের পরে আবার স্বরূপ ধরবেন, এসব কৃষ্ণেন্দুর রাজনৈতিক কৌশল।' তবে সাধারণ এর মধ্যে প্রচারপত্র নিয়ে দেখা যায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

Sebak Deb Sharma

Published by:Debamoy Ghosh
First published: