West Bengal Election 2021 Violence: রণক্ষেত্র শীতলকুচি, সাত-সকালে ভোটের লাইনে চলল গুলি, যুবকের মৃত্যু

West Bengal Election 2021 Violence: রণক্ষেত্র শীতলকুচি, সাত-সকালে ভোটের লাইনে চলল গুলি, যুবকের মৃত্যু

সাত-সকালে ভোটের লাইনে চলল গুলি, যুবকের মৃত্যু । ফাইল ছবি।

তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে (TMC-BJP Clash) উত্তপ্ত শীতলকুচি। চতুর্থ দফার ভোট (West Bengal Assembly Election 2021 Phase 4) গ্রহণের দিন ভোটের লাইন শুরুর সময় থেকেই রণক্ষেত্রের (Bengal Poll Violence) চেহারা নেয় কোচবিহারের শীতলকুচির পাঠানপুলি, খলিসামারি।

  • Share this:

    #শীতলকুচি: তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে (TMC-BJP Clash) উত্তপ্ত শীতলকুচি। চতুর্থ দফার ভোট (West Bengal Assembly Election 2021 Phase 4) গ্রহণের দিন ভোটের লাইন শুরুর সময় থেকেই রণক্ষেত্রের  (Bengal Poll Violence) চেহারা নেয় কোচবিহারের শীতলকুচির পাঠানটুলি, খলিসামারি। সংঘর্ষের জেরে চলল গুলি (Firing)। খলিসামারিতে বোমাবাজির (Bombing) অভিযোগ।

    এ দিনের গুলিকাণ্ডে ১৮ বছর বয়সী এক যুবকের মৃত্যু হয়, যা নিয়ে শুরু হয়েছে ব্যাপক রাজনৈতিক চাপানউতোর। মৃত ওই যুবকের নাম আনন্দ বর্মণ। বিজেপির (BJP) দাবি, যে যুবকের মৃত্যু হয়েছে, তিনি বিজেপির কর্মী। পাল্টা তৃণমূলের (AITMC) দাবি, তাঁদের কর্মীর মাথায় গুলি লেগেছে। তবে তিনি আদতে তৃণমূল নাকি বিজেপি কর্মী তা স্পষ্ট নয় এখনও। ইতিমধ্যেই ঘটনার রিপোর্ট তলব করেছে নির্বাচন কমিশন (Election Commission)। ঘটনায় দু'জনকে আটক করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এলাকায় র‍্যাফ, কমব্যাট ফোর্স নামানো হয়েছে। যুবকের দেহ সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই ময়না তদন্তের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

    এ দিকে, মাথাভাঙাতেও তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ চলছে দফার দফায়। ভোটের আগে রাতভর অশান্তি কোচবিহারের মাথাভাঙায়। বিজেপি কর্মীদের বাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ তুলেছে স্থানীয় বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। পালটা তৃণমূল যুব নেতার বাড়ি ‘ভাঙচুর’-এর অভিযোগ উঠেছে বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে। যদিও দু’পক্ষই ভাঙচুরের অভিযোগ অস্বীকার করেছে

    উল্লেখ্য, গত দু'দিন ধরে অশান্তির জেরে বিভিন্ন অংশে ১৪৪ ধারা জারি করেছে কোচবিহার জেলা প্রশাসন। শীতলকুচি, মাথাভাঙ্গা, সিতাই-সহ প্রত্যেকটি থানার যে স্পর্শকাতর অঞ্চলগুলি রয়েছে সেই অঞ্চলগুলিতে ১৪৪ ধারা জারি। শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকেই ১৪৪ ধারা জারি করা হল। জমায়েত দেখলেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে ওই অঞ্চলগুলিতে। কোচবিহার জেলার পুলিশ সুপারের বাইট যাবে।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: