নন্দীগ্রাম নিয়ে নো চিন্তা, বাকি ছয় দফায় স্বচ্ছ ভোট চেয়ে কমিশনে TMC

নন্দীগ্রাম নিয়ে নো চিন্তা, বাকি ছয় দফায় স্বচ্ছ ভোট চেয়ে কমিশনে TMC

নির্বাচন কমিশনে তৃণমূল প্রতিনিধিরা। নিজস্ব চিত্র

কাজ সেরে বেরিয়ে দলীয় প্রতিনিধিরা তৃণমূল সুপ্রিমোর সুরেই বললেন, নন্দীগ্রামের জয় নিয়ে চিন্তিত নই, গণতন্ত্র রক্ষার্থে এই অভিযোগ দায়ের।

  • Share this:

    #কলকাতা: প্রথম দুই দফায় নির্বাচন অবাধ, শান্তিপূর্ণ হয়নি। পরবর্তী দফাগুলিতে কমিশনের হস্তক্ষেপ প্রয়োজন অবিলম্বে। এই মর্মে নির্বাচন কমিশনে আরও একবার চিঠি দিল তৃণমূল। এ দিন তৃণমূলের পক্ষ থেকে ডেরেক ও ব্রায়েন, শুখেন্দু শেখর রায়, যশবন্ত সিং, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, নাদিম উল হক, নয়না বন্দ্যোপাধ্যয়রা কমিশনের অফিসে হাজির হন। কাজ সেরে বেরিয়ে দলীয় প্রতিনিধিরা তৃণমূল সুপ্রিমোর সুরেই বললেন, নন্দীগ্রামের জয় নিয়ে চিন্তিত নই, গণতন্ত্র রক্ষার্থে এই অভিযোগ দায়ের।

    এই চিঠিতে মূলত তিনটি অভিযোগ এনেছে তৃণমূল। প্রথমেই বলা হয়েছে স্বচ্ছ ভোটদান প্রক্রিয়াকে ব্যহত করতে দুই দফাতেই অশান্তি করেছে বিজেপি আশ্রিত গুণ্ডারা। ইতিমধ্যেই ৩০০ অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে তৃণমূলের পক্ষ থেকে। পাশাপাশি তৃণমূলের স্পষ্ট অভিযোগ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে ‌কেন্দ্রীয় বাহিনী কর্তব্যে অবহেলা করছে। চিঠিতে বলা হয়েছে, বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের দুর্বৃত্তায়ন দেখেও কোথাও কোথাও নীরব দর্শক হয়ে থেকেছে সিআরপিএফ। তৃণমূলের তৃতীয় অভিযোগ- বহু জায়গায় ইভিএম খারাপ থাকায় ভোটপর্ব ব্যহত হয়েছে। তারা চাইছেন কমিশন আগেভাগে ইভিএম পরীক্ষা করে দেখে নিক, যদি কোনও ইভিএম খারাপ থাকে তা বাতিল করা হোক আগে থেকেই।

    কমিশনের অফিস থেকে বেরিয়ে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সভাপতি যশবন্ত সিং বলেন, সমস্ত উস্কানি সত্ত্বেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বড় ব্যবধানে জিততে চলেছেন নন্দীগ্রামে। দোলা সেনও জয় নিশ্চিত জানিয়ে বলতে থাকেন, আমরা আসলে চাইছি গণতন্ত্রের নিয়মমকানুনগুলি ঠিক থাকুক।

    প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এ দিন কোনও বুথে পুনর্নির্বাচনের দাবি তোলেনি তৃণমূল। শুভেন্দু অধিকারী শুক্রবারই বলেছিলেন কোথাও পুনর্নিবাচনের প্রশ্নই নেই। তৃণমূলের শীর্ষনেতাদের বডি ল্যাঙ্গুয়েজ বলছে এই চ্যালেঞ্জটাও তাঁরা সানন্দে নিচ্ছেন। অর্থাৎ জয়ের ব্যাপারে তাঁরা অনেকটাই নিশ্চিত।

    Published by:Arka Deb
    First published:

    লেটেস্ট খবর