কুপিয়ে খুন ৩টি লেপার্ড ক্যাটের শাবক, নালা থেকে মিলল ক্ষতবিক্ষত রক্তাত্ত দেহ

কুপিয়ে খুন ৩টি লেপার্ড ক্যাটের শাবক, নালা থেকে মিলল ক্ষতবিক্ষত রক্তাত্ত দেহ

ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে বলে প্রাথমিক অনুমান। নিউ ডুয়ার্স চা বাগানের ৩৯ নম্বর সেকশন থেকে উদ্ধার হয়।

  • Share this:

#জলপাইগুড়ি: ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করা হলো তিনটি লেপার্ড ক্যাটের শাবককে। ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ি নিউ ডুয়ার্স চা বাগানে। শুক্রবার দুপুরবেলা চা বাগানের নালাতে তিনটি লেপার্ড ক্যাটের শাবক মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন বাগানের শ্রমিকরা। খবর দেওয়া হয় বিন্নাগুড়ি বন্যপ্রাণী স্কোয়াডের কর্মীদের।

ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে বলে প্রাথমিক অনুমান। নিউ ডুয়ার্স চা বাগানের ৩৯ নম্বর সেকশন থেকে উদ্ধার হয়। দেহগুলি উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় গরুমারা জাতীয় উদ্যান এর লাটাগুড়ি প্রকৃতি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে। সেখানে ময়নাতদন্ত করা হবে লেপার্ড ক্যাটের দেহ। তবে প্রশ্ন উঠছে কারা এই শাবক গুলিকে খুন করল। কারণ গত মাসেই হলদিবাড়ি চা বাগানের নালা থেকে একটি চিতাবাঘের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। সেটিকেও পিটিয়ে খুন করা হয়েছিল বলে ময়নাতদন্ত রিপোর্টে প্রমাণ মেলে।

বাগানে একের পর এক বন্যপ্রাণীকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় চিন্তিত কর্মীরা।জলপাইগুড়ির বন্যপ্রাণী বিভাগের ডি এফ ও মিশা গোস্বামী জানান, লেপার্ড ক্যাটের মৃত্যুর কারণ এখনও পরিষ্কার নয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাটাগুড়ি প্রকৃতি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে লেপার্ড ক্যাট গুলির। বন্যপ্রাণী আইনে সিডিউল ২ তালিকাভুক্ত। কী কারনে মৃত্যু তা খতিয়ে দেখছে বনকর্মীরা ।

জলপাইগুড়ির অনারারি ওয়াইল্ডলাইফ ওয়ার্ডেন সীমা চৌধুরী বলেন, শাবক ৩ টিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। কারণ চা বাগানের নালার মধ্যে পরপর তিনটি শাবককে সাজিয়ে রাখা হয়েছিল। পেটের মধ্যে ধারালো অস্ত্রের কোপানোর চিহ্ন পাওয়া গেছে। বনকর্মীরা খোজ চালাচ্ছেন কারা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত।

First published: February 7, 2020, 8:20 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर