corona virus btn
corona virus btn
Loading

Lockdown| লকডাউন উধাও সাতসকালেই! এই বাজারে খুলে গেল প্রায় সব দোকান

Lockdown| লকডাউন উধাও সাতসকালেই! এই বাজারে খুলে গেল প্রায় সব দোকান

খবর পেয়ে হানা পুলিশের। বন্ধ করে দেওয়া হয় একাধিক দোকান। মালদহ শহরের প্রাণকেন্দ্রে রয়েছে দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন বাজার।

  • Share this:

#মালদহ: লকডাউন এর মধ্যেই আচমকাই বৃহস্পতিবার সকাল থেকে খুলে যায় মালদহের দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন বাজারে বেশ কিছু দোকান।  পসরা সাজিয়ে বসেন প্রসাধনী সামগ্রী বিক্রেতারা । খুলে যায়  বাসনের দোকান, দশকর্মার দোকান সহ বিভিন্ন ধরনের একাধিক দোকান। এর ফলে বাজারের ভেতর সংকীর্ণ রাস্তায় লোকসমাগম বেড়ে যায়।

খবর পেয়ে হানা পুলিশের। বন্ধ করে দেওয়া হয় একাধিক দোকান। মালদহ শহরের প্রাণকেন্দ্রে রয়েছে দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন বাজার। ইংরেজবাজার পুরসভার অধীন এই বাজার মালদহের ব্যবসায়িক লেনদেনের অন্যতম ভরকেন্দ্র । খুচরো এবং পাইকারি মিলিয়ে কয়েকশো দোকান রয়েছে এই বাজারে । শহরের মানুষ তো বটেই , জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নানা কেনাকাটার প্রয়োজনে লোকজন প্রতিনিয়ত আসেন এখানে।

লকডাউন  পরিস্থিতিতে এই বাজারের ব্যবসায়ীরা ঝুলিয়ে সকাল এগারোটার মধ্যে সমস্ত দোকান বন্ধ করে দিচ্ছেন। করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সচেতন রয়েছেন এখানকার ব্যবসায়ীরা। প্রতিদিন সকাল এগারোটা বাজার আগেই বাসের ড্রপ গেট ফেলে দেওয়া হচ্ছে বাজারে। এইসব  উদ্যোগ নিঃসন্দেহে সচেতনতার বার্তা দিচ্ছে। কিন্তু, বৃহস্পতিবার সকালে হঠাৎ বদলে গেল চেনা ছবি। সাতসকালেই চিত্তরঞ্জন বাজারের প্রচুর দোকান খুলে গেল। অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নয় এমন অনেক দোকানে মালপত্র সাজিয়ে দোকান খুলে বসে পড়েন ব্যবসায়ীরা।

স্বাভাবিকভাবেই ভিড় জমতে থাকে ক্রেতাদের। বাজারের ভেতর সংকীর্ণ রাস্তায় এর ফলে চলাচলের সমস্যা দেখা দেয়। খবর পেয়ে এলাকায় পৌঁছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। ব্যবসায়ীদের স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়, লকডাউন পরিস্থিতিতে কোনভাবেই দোকান খোলা  যাবে না।

স্থানীয় ব্যবসায়ীদের একাংশ জানিয়েছেন, প্রায় এক মাস ধরে লকডাউন চলায় বাজারের ছোট ব্যবসায়ীরা অনেকেই আর্থিক সংকটের মধ্যে রয়েছেন। তাই ঝুঁকিপূর্ণ হলেও অনেকেই ন্যূনতম রোজগারের আশায় সকালে মাত্র দু ঘন্টার জন্য দোকান খোলেন। তবে পুলিশ সতর্ক করার পর বেশির ভাগ দোকানই ফের  বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

SEBAK DEB SARMA

First published: April 23, 2020, 11:02 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर