• Home
  • »
  • News
  • »
  • north-bengal
  • »
  • করোনা পরিস্থিতিতে মালদহে থামার্ল স্কিনিং চলছে শহরবাসীর

করোনা পরিস্থিতিতে মালদহে থামার্ল স্কিনিং চলছে শহরবাসীর

এই সূর্যগ্রহণের নেপথ্যে ছিল কেতুর প্রভাব৷ দৈব ক্ষমতা রয়েছে যে গ্রহের, সেই বৃহস্পতিরও সেই সময় শক্তি হ্রাস হয়েছিল৷ এর ফলে কেতুর দাপট বাড়ে৷ আর রোগ, জীবাণুর সংক্রমণের পিছনেও থাকে কেতুর প্রভাব৷ PHOTO- FILE

এই সূর্যগ্রহণের নেপথ্যে ছিল কেতুর প্রভাব৷ দৈব ক্ষমতা রয়েছে যে গ্রহের, সেই বৃহস্পতিরও সেই সময় শক্তি হ্রাস হয়েছিল৷ এর ফলে কেতুর দাপট বাড়ে৷ আর রোগ, জীবাণুর সংক্রমণের পিছনেও থাকে কেতুর প্রভাব৷ PHOTO- FILE

স্বাস্থ্য পরীক্ষার পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মধ্যে মাস্ক বিলি করা হয়। স্যানিটাইজার দিয়ে পথ চলতি মানুষের হাত ধুয়ে দেওয়ার ব্যবস্থাও করে।

  • Share this:

#মালদহ: লকডাউন পরিস্থিতিতে মালদহে শহরবাসীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার উদ্যোগ নিল মার্চেন্ট চেম্বার অফ কমার্স। শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় শিবির করে শুরু হয়েছে থার্মাল স্কিনিং। জেলার বনিক মহল এই কাজে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন বঙ্গরত্ন চিকিৎসক ডাঃ দ্বিজেন সরকার। রবিবার সকালে মালদহ শহরের রথবাড়ি মোড়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবিরের সূচনা করেন মালদহের পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া।

স্বাস্থ্য পরীক্ষার পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মধ্যে মাস্ক বিলি করা হয়। স্যানিটাইজার দিয়ে পথ চলতি মানুষের হাত ধুয়ে দেওয়ার ব্যবস্থাও করে। মালদহ শহরে লকডাউনের মধ্যেও জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত অনেককেই রাস্তায় বের হতে হচ্ছে। মূলত তাঁদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্যই এমন পদক্ষেপ বলে জানিয়েছেন মালদহ মার্চেন্ট চেম্বার অফ কমার্সের সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত কুণ্ডু।

এদিন স্বাস্থ্য শিবিরে পুলিশকর্মী, দমকলকর্মী, স্বাস্থ্যকর্মী, সংবাদমাধ্যম কর্মীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। তবে দুপুর পর্যন্ত গায়ে জ্বর বা করোনার সম্পর্কিত উপসর্গ রয়েছে এমন কাউকে পাওয়া যায়নি। এদিনের স্বাস্থ্য পরীক্ষার মাধ্যমে শহরবাসীর স্বাস্থ্যের ওপর সমীক্ষাও হয়। সাধারণ ভাবে যাঁদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে তাঁদের স্বাস্থ্যের লক্ষ্মণ দেখে চিকিৎসকেরা সন্তুষ্ট। জেলার ব্যবসায়ী সমিতি জানিয়েছে, করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের তহবিলে দান করার পরিকল্পনা রয়েছে। এর পাশাপাশি যত বেশী সম্ভব মানুষের মধ্যে মাস্ক বিলি এবং সচেতনতার প্রচার চালানো হবে।

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: